সৌদি আরবে মায়ের সামনে শিয়া শিশুর শিরশ্ছেদ

সৌদি আরবে মায়ের সামনে শিয়া শিশুর শিরশ্ছেদ

সৌদি আরবের মদিনায় মায়ের সামনে ছয় বছরের শিশুকে শিরশ্ছেদ করেছে এক ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার রাতে ওই ব্যক্তির ট্যাক্সিতে চড়ে ওই শিশু ও তার মা মহানবীর রওজায় যাচ্ছিল। এই সময় দুরুদ শুনে শিয়া মতাবলম্বী হওয়ার বিষয়টি টের পেয়ে শিশুটিকে হত্যা করে সে। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি।

শিশুটির নাম জাকারিয়া আল-জাবের। মায়ের সঙ্গে হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর রওজা জিয়ারতের জন্য রওয়া হয়েছিলো সে। পথে তার মা দুরুদ শরীফ পাঠ করতেই ট্যাক্সি চালক জানতে চান তিনি শিয়া মুসলমান কিনা? উত্তরে হ্যা বলেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে ট্যাক্সি থামিয়ে শিশুকে বের করে এনে ভাঙা কাচ দিয়ে ঘাড় থেকে মাথা আলাদা করে ফেলেন ওই চালক। সেখানেই জ্ঞান হারান জাবেরের মা।

হত্যাকাণ্ডের পর শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়ে সৌদি আরবে শিয়া সম্প্রদায়। শিশুটির পরিবারের কাছে এসে সহানুভূতি জানান দেশটিতে নানা নির্যাতনের শিকার হওয়া শিয়ারা।

শিয়া সম্প্রদায়ের এক নেতা বলেন, ‘আমাদের বিরুদ্ধে সৌদিতে চলা নিপীড়নেরই অংশ এটি। এখানে কর্তৃপক্ষ শিয়াদের কোনো প্রকার সুরক্ষা দিচ্ছে না।’

ওয়াশিংটন ভিত্তিক শিয়া মানবাধিকার সংস্থা আসাপ এক বিবৃতিতে এ ঘটনার বিচার দাবি করেছে। সংস্থাটির বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সৌদি আরবের শিয়া সম্প্রদায় এখনও নানা হামলার শিকার হচ্ছে। পরিস্থিতির উন্নতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না। এমন নৃশংসভাবে জাবেরের হত্যাকাণ্ডের অবশ্যই সুরাহা হওয়া উচিত।’

সূত্র: ডেইলি মেইল, ডেইলি মিরর, প্রেস টিভি

Leave a Reply