তিনদিনের মাথায় ‘সত্যাগ্রহ’ প্রত্যাহার করলেন মমতা ব্যানার্জি

তিনদিনের মাথায় ‘সত্যাগ্রহ’ প্রত্যাহার করলেন মমতা ব্যানার্জি

তিনদিনের মাথায় ধর্না প্রত্যাহার করলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ আসার পর রাজনৈতিক মহলের ধারনা হয়েছিল ধর্না প্রত্যাহার করে নেবেন। সে অনুসারে ধর্না তুলে নিলেন মমতা।

মমতা বলেন, ১৩ এবং ১৪ তারিখ দিল্লিতে ধর্না হবে। সংবিধান এবং গণতন্ত্র রক্ষা করতে ধর্না করেছেন বলে তিনি জানান। তার পাশে ছিলেন চন্দ্রবাবু নায়ডু।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সকালে এইচ ডি দেবেগৌড়ার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তাছাড়া চন্দ্রবাবু এসেছেন, তেজস্বীও আছেন। সবাই আলোচনা করে ঠিক করেছি আগামী সপ্তাহে দিল্লিতে ধর্না হবে।

মমতার পাশে দাঁড়িয়ে চন্দ্রবাবু বলেন, আদালতের রায় সংবিধানের জয়। আদালত ভালো রায় দিয়েছে তাই আমরা সবাই ম্যাডাম (মুখ্যমন্ত্রী)কে ধর্না প্রত্যাহার করতে অনুরোধ করি, উনি সেই অনুরোধ রেখেছেন বলে ধন্যবাদ। পাশাপাশি রাজ্যের ভোটারদের তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে রাজ্যের ৪২টি আসনেই মমতাকে জিতিয়ে দিতে হবে।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পক্ষ থেকে রাজ্যপালের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার একজন আইপিএস অফিসার হয়েও রাজনৈতিক ধর্না মঞ্চে গিয়েছিলেন?

মমতা বলেন, রাজীব কুমার ধর্না দিতে আসেননি, নিরাপত্তার কারণে এসেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তা দেয়াই তার কাজ। তিনি সেটাই করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভার কথা উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আপনি তো সেদিন ঠাকুর নগরে সভা করেলেন। তখন কতজন সিআরপিএফ জওয়ান আপনার সঙ্গে ছিলেন? আপনার সভায় থাকলে সমস্যা নেই, আর অন্য কারো সভায় থাকলেই সমস্যা?

Leave a Reply