‘বিভেদ’ নিয়ে কথা বলতে নারাজ সিইসি

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার ও ইসির অন্যান্য কমিশনারদের প্রকাশ্য বিরোধ নিয়ে কিছু বলতে রাজি হননি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। এমনকি এ বিষয়ে কথা না বলার জন্য সাংবাদিকদের অনুরোধও করেন তিনি।

বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে মতবিরোধ থাকলেও জাতীয় নির্বাচন পরিচালনার কাজ কঠিন হবে না বলে মনে করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি উপলক্ষে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এবলেন তিনি।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এর আগের দিন সোমবার (১৫ অক্টোবর) কমিশন বৈঠক থেকে নোট অব ডিসেন্ট (ভিন্ন মত) দিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বেরিয়ে যান।

সাংবাকিরা জানতে চান, আজকে তো মাঠ পর্যায়ের সবার কথা শুনলেন। গতকালকের বৈঠকে একজন কমিশনারের কথা আপনারা শুনেননি। উনি বলেছেন, বাক স্বাধীনতায় আপনারা হস্তক্ষেপ করেছেন। এর জবাবে সিইসি বলেন, আমাকে আর ইনসিস্ট (জোরাজুরি) করবেন না। আমি ওটা নিয়ে কথা বলবো না। আজকের কথা বলেন।

নির্বাচনের সময় কোন ধরনের সরকার থাকবে সেটার জন্য আপনারা তফসিল পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন?- সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অবশ্যই। আমরা দেখি না সংসদ সদস্যদের কীভাবে রাখেন। সরকারের অবস্থান কী থাকবে, এমপিদের অবস্থান কী থাকবে এটা নিয়ে আজকে কোনো কথা হয়নি।

নির্বাচনী আচরণ বিধির বিষয়ে তিনি বলেন, আচরণবিধিতে কিছু কিছু পরিবর্তনের উদ্যোগ নেবো। তবে কী তা এখন মনে নেই। নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম তৈরি করেছেন। সামনে তিন-চারদিন পর আমাদের কমিশন সভা আছে। সেদিন এটি দেখা হবে।

মাঠকর্মকর্তারা নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে কী বলেছেন জানতে চাইলে সিইসি বলেন, তারা বলেছেন তাদের যে দায়িত্ব সেগুলোর ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা, পুলিশের সহযোগিতা, জেলা পরিষদের সহযোগিতা এগুলো তারা প্রচুর পাচ্ছে এবং তাদের এই পর্যন্ত যে প্রস্তুতি তা ভালো।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে সভায় নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, ইসির অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলামসহ ইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply