প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের পর ইথিওপিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের পর ইথিওপিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

আচমকা প্রধানমন্ত্রী হেইলএমারিয়াম ডেসালেং অপ্রত্যাশিতভাবে পদত্যাগ করার মাত্র এক দিনের মাথায় গতকাল শুক্রবার আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ায় দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

দেশটির জাতীয় সম্প্রচারমাধ্যম ইবিসি প্রচারিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সরকারবিরোধী বিক্ষোভ দমনে জরুরি অবস্থা জারি করা প্রয়োজন হয়ে পড়েছিল। তবে কতদিন স্থায়ী হবে এবং জরুরি অবস্থায় কী কী বিধিনিষেধ আরোপ থাকবে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি বিবৃতিতে।

তবে সরকারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আদ্দিস স্ট্যান্ডার্ড জানিয়েছে, বৈঠকে জরুরি অবস্থার মেয়াদ ৩ মাস বা ৬ মাস করার বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

গত কয়েক বছরে ইথিওপিয়ায় সরকারবিরোধী বিক্ষোভে শত শত লোক নিহত হয়েছে। বিক্ষোভ দমনে ১০ মাস জরুরি অবস্থা জারি ছিল। গত বছর এর মেয়াদ শেষ হয়। তবে তা বিক্ষোভ ঠেকাতে ব্যর্থ হয়। এ সময়ে কারারুদ্ধবিরোধী রাজনৈতিক নেতাসহ হাজার হাজার বন্দিকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় সরকার। এদিকে, রাজপথের বিক্ষোভের কারণে চরম চাপে রয়েছে সরকার। বিরোধীদের মুক্তি দেওয়ার পরও বিক্ষোভ শেষ হওয়ার কোনো ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার পদত্যাগের ঘোষণায় হেইলএমারিয়াম দাবি করেন, ‘দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক অস্থিরতা ও বিক্ষোভ যাতে শেষ হয়, সে প্রত্যাশা নিয়ে তিনি পদত্যাগ করছেন। ’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশের প্রয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ সংস্কারের জন্য আমি পদত্যাগ করেছি, যার মধ্য দিয়ে টেকসই গণতন্ত্র ও শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে। ’

তবে ইপিআরডিএফ ও দেশটির পার্লামেন্ট পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে নতুন কাউকে স্থলাভিষিক্ত না করা পর্যন্ত তিনি অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান তিনি। ক্ষমতাসীন জোট ইপিআরডিএফ ও তার নিজের দল সাউদার্ন ইথিওপিয়ান পিপলস ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্ট তার পদত্যাগের সিদ্ধান্তকে ইতোমধ্যে মেনে নিয়েছে।

Leave a Reply