শেখ হাসিনার সততা ও সাহসী নেতৃত্বের জন্য আগামী নির্বাচনেও বিজয়ী হবে আওয়ামী লীগ : ওবায়দুল কাদের

শেখ হাসিনার সততা ও সাহসী নেতৃত্বের জন্য আগামী নির্বাচনেও বিজয়ী হবে আওয়ামী লীগ : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সততা ও দৃঢ় সাহসী নেতৃত্বের জন্য আগামী জাতীয় নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ বিজয়ী হবে।
তিনি রোববার বিকেলে বন্দর নগরীর লালদিঘী ময়দানে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র প্রয়াত এ বিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বের ১৭৩টি দেশের সরকার প্রধানের মধ্যে শেখ হাসিনা ৫ম সৎ রাষ্ট্রনায়ক। তাঁর এ সততাই আওয়ামী লীগের আগামী নির্বাচনের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার।’
কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার বিরুদ্ধে এখনও ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। আগামী নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করার মাধ্যমে এ ষড়যন্ত্রের জবাব দিতে হবে।
মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়–য়া, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুসলেম উদ্দিন চৌধুরী।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের তিনবারের নির্বাচিত মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নে যে অসামান্য অবদান রেখেছেন তাতে নগরবাসী চিরদিন তাঁকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।
তিনি বলেন, সফল এ নগর পিতার রাজনৈতিক জীবন থেকে রাজনীতিবিদদের অনেক কিছু শেখার রয়েছে। তিনি আওয়ামী লীগের নেতাদের জন্য শেখার অনেক কিছু রেখে গেছেন।
কাদের আরো বলেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী তাঁর দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে চট্টগ্রামের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও শিক্ষা ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রেখে গেছেন। যা নগরবাসী কখনো ভূলবে না।
ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী তৃনমূল পর্যায় থেকে রাজনীতি শুরু করেছিলেন। তিনি তার সাংগঠনিক শক্তি ও সাহসিকতার মাধ্যমে মানবতার জন্য কাজ করে গেছেন।
তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করার পর মহিউদ্দিন চৌধুরীই নির্মম এই হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে প্রথম প্রতিবাদ করেছিলেন।

Leave a Reply