‘যার যা আছে, তাই নিয়ে বন্যার্তদের পাশে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন আ’লীগ নেতাকর্মীরা’

‘যার যা আছে, তাই নিয়ে বন্যার্তদের পাশে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন আ’লীগ নেতাকর্মীরা’

বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের সহায়তায় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

মন্ত্রী বলেন, ‘সিলেটে বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের সাহায্যে যার যা আছে, তাই নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। প্রশাসন, সেনাবাহিনী, পুলিশ, বিজিবি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ আমাদের নেতাকর্মীরা সবাই মিলে কাজ করে যাচ্ছেন।’

আজ মঙ্গলবার (২১ জুন) বিকেলে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এরআগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সিলেটের বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন করেন তথ্যমন্ত্রী।

হাছান মাহমুদ বলেন, সিলেটের প্রধান নদীগুলো ড্রেজিং করা দরকার। প্রতিবছর পলি পড়ার কারণে নদীর ধারণক্ষমতা কমেছে। এটি বন্যার অন্যতম কারণও বটে। আরেকটি বিষয় হচ্ছে, উজানে অর্থাৎ চেরাপুঞ্জি ও মেঘালয়ে প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে ঢলের পানি দ্রুত চলে এসেছে। মানুষ বুঝতেও পারেনি। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখেছেন, বাড়িতে পানি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সিলেটে প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে সিলেটের মেয়রও বক্তব্য রেখেছেন। সেখানে প্রধানমন্ত্রী তাকে বললেন, আপনাদের দলের কাছ থেকে জনগণ কী পেয়েছে একটু বলেন। তিনি কিছু বলতে পারলেন না। কারণ বিএনপির পক্ষ থেকে কিছুই করা হয় নি। সিলেটে তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তারা ঢাকাতে বসে বসে লম্বা লম্বা বক্তৃতা দেয়, বাক বাকুম করে।’

তিনি বলেন, ‘আরেকটা বিষয়ে আমি কথা বলতে চাই। কিছু সাংবাদিক নামধারী আছেন, যারা ঢাকায় বসে বসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছেন। করোনার সময়ও এটি করতে দেখেছি। যখন পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করা হয়, নির্মাণকাজ শুরু হয়, তখনো অপপ্রচার করেছেন তারা। আসলে তারা তথাকথিত সাংবাদিক। এখনো তারা এ কাজটি করছেন। এ বিষয়ে সিলেটের জনগণ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘যারা এসব করছেন, তাদের বিরুদ্ধে মূলধারার গণমাধ্যম যেমন আগেও সোচ্চার ছিল, এখনো যেন সোচ্চার থাকে। ঢাকাতে বসে বসে ঠিকমতো খবর না নিয়ে নানান স্টোরি বানানো হচ্ছে। আবার কেউ কেউ সিলেটে বসেও নানান ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এ ধরনের কাজ করা উচিত না।’

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর