সরকারিভাবে ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার প্রস্তাব ফিনল্যান্ডের

সরকারিভাবে ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার প্রস্তাব ফিনল্যান্ডের

পার্লামেন্টে আগেই পাশ হয়েছিল। এবার সরকারিভাবে ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার কথা জানালো ফিনল্যান্ড। যদিও তুরস্কের অবস্থান নেতিবাচক।

শেষপর্যন্ত সরকারিভাবে ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার আর্জি জানালো ফিনল্যান্ড। রবিবার (১৫ মে) দেশের প্রেসিডেন্ট সরকারি দলের প্রস্তাবের সঙ্গে সহমত হয়েছেন এবং তারপরেই সরকারিভাবে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহে সরকারিভাবে ফিনল্যান্ডের পার্লামেন্টও প্রস্তাব পেশ করতে পারে। খবর ডয়েচে ভেলের।

ফিনল্যান্ডের এই অবস্থান তাদের আগের অবস্থানের সম্পূর্ণ বিপরীত। এতদিন রাশিয়া এবং ইউরোপের সঙ্গে ভারসাম্য রক্ষার নীতি নিয়ে চলছিল ফিনল্যান্ড। ঠান্ডা যুদ্ধের সময়েও এই নীতি নিয়েই তারা চলেছিল। কিন্তু ইউক্রেন যুদ্ধের পর তারা নীতি বদল করেছে। বস্তুত, ফিনল্যান্ডের সাধারণ মানুষও চাইছেন ন্যাটোয় যোগ দিতে।

রবিবার ফিনল্যান্ড জানিয়েছে, অতীতে সোভিয়েতের সঙ্গে তাদের লড়াই হয়েছে। ফের কোনো লড়াইয়ের মধ্যে তারা যেতে চায় না। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত। ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট তাদের সিদ্ধান্তের কথা রাশিয়ার প্রেসিডেন্টকেও জানিয়েছেন বলে প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে। ফিনল্যান্ড ন্যাটোয় যোগ দিলে তাদের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক খারাপ হবে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

চলতি সপ্তাহে সুইডেনও সরকারিভাবে তাদের ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার প্রস্তাব জানিয়ে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। সুইডেনের সরকারি দল সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট ইতিমধ্যেই তাদের প্রস্তাব জানিয়ে দিয়েছে। তারা দ্রুত ন্যাটোয় যোগ দিতে চাইছে। এই সপ্তাহেই পার্লামেন্টে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

সুইডেন এবং ফিনল্যান্ডের ন্যাটোয় যোগদান নিয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে তুরস্ক। তারা জানিয়েছে, ফিনল্যান্ড নিয়ে তাদের কোনো বক্তব্য নেই কিন্তু সুইডেনের যোগদান নিয়ে তাদের আপত্তি আছে। কুর্দ যোদ্ধাদের শত্রু বলে মনে করে তুরস্ক। কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি (পিকেকে) তুরস্কে সন্ত্রাসবাদী দল হিসেবে পরিচিত। ন্যাটোর সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর তালিকাতেও পিকেকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে পরিচিত। কিন্তু তুরস্কের অভিযোগ, সুইডেন পিকেকে-কে সন্ত্রাসী দল হিসেবে মনে করে না। সময় সময় তারা পিকেকে-কে সাহায্যও করেছে। সে কারণেই তারা সুইডেনের যোগদান মেনে নিতে রাজি নয়। তুরস্ক জানিয়েছে, সুইডেনকে ন্যাটোয় যোগ দিতে হলে পিকেকে নিয়ে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে।

ন্যাটো অবশ্য সুইডেন এবং ফিনল্যান্ডের যোগদান নিয়ে আশাবাদী। দ্রুত এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে তারা।

আন্তর্জাতিক শীর্ষ খবর