ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানি বন্ধ করেনি: খাদ্যমন্ত্রী

ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানি বন্ধ করেনি: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, বেসরকারিভাবে বন্ধ হলেও ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানি বন্ধ করেনি। হয়তো একমাস বা ১৫ দিন পর সেটিও তুলে দেবে। উৎপাদিত গম তাদের তো বিক্রি করতে হবে।

রোববার (১৫ মে) দুপুরে সিলেট সদর খাদ্যগুদাম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

খাদ্যমন্ত্রী আরও বলেন, সম্প্রতি সুনামগঞ্জে বোরো ফসলের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হলেও চাষাবাদ হয়েছে অনেক বেশি। এ থেকে আমাদের ধান-চালের শক্তিশালী একটি মজুত গড়ে উঠবে। এছাড়া গত আউশ এবং আমন ধানের প্রচুর মজুত রয়েছে আমাদের। আগামী আউশ ফসলও ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই দেশে কোনোভাবেই খাদ্যসংকট তৈরি হবে না।

খাদ্যমন্ত্রী আরও বলেন, এক বছর ধরে আমরা বিদেশ থেকে কোনো চাল আমদানি করিনি। আমাদের কৃষকদের উৎপাদিত ধান দিয়েই চালের চাহিদা মিটেছে। তবে গম আমাদের দেশে হয় না, আমদানি করতে হয়। গম আমদানি করা হতো ইউক্রেন ও রাশিয়া থেকে। কিন্তু এ দুই দেশের যুদ্ধের পর আমরা পাশের দেশ ভারত থেকে তিন লাখ টন গম আমদানি করেছি। পরে যা দরকার হবে তাও ভারত থেকে আমদানি করা হবে।

ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানি বন্ধ করেনি: খাদ্যমন্ত্রী

সিলেটে একটি আধুনিক ‘রাইস সাইলো’ স্থাপন করা হবে জানিয়ে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, এ জন্য জায়গা খোঁজা হচ্ছে। জায়গা পাওয়া গেলেই সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে শুরু হবে এর কাজ।

এ সময় খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নাজমানারা খানুম, জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান, খাদ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (সংগ্রহ) মো. রায়হানুল কবীর, পরিচালক মো. জামাল হোসেন, আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক সিলেট মো. মাইন উদ্দিন, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নয়ন জ্যোতি চাকমাসহ সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর