বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে চার লাখ এক হাজার ৬৯৩ জনের দেহে। ফলে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত- দুটোই কমেছে।

রবিবার (১৫ মে) সকালে বৈশ্বিক পর্যায়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার আপডেট দেওয়া ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য জানা যায়।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত করোনায় বিশ্বজুড়ে মারা গেছেন ৬২ লাখ ৮৭ হাজার ৬৩১ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে মোট শনাক্ত পৌঁছেছে ৫২ কোটি ৮ লাখ ২১ হাজার ৯ জনে।

গত একদিনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ায়। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে তাইওয়ানে। রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা গেছেন ১০৭ জন। এ সময়ে দেশটিতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে পাঁচ হাজার ৪৭ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট শনাক্ত এক কোটি ৮২ লাখ ৫৫ হাজার ৩৩৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে তিন লাখ ৭৭ হাজার ৫৭১ জন।

গত একদিনে সর্বোচ্চ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে তাইওয়ানে, ৬৪ হাজার ৪১ জন। একই সময়ে দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ৪০ জন। এ নিয়ে তাইওয়ানে শনাক্ত মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ছয় লাখ ৮৭ হাজার ৬০১ জন। এছাড়া মোট গেছেন এক হাজার ৪৯ জন।

এদিকে, সর্বোমোট মৃত্যু ও শনাক্তের বিচারে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ জন মৃত্যুর পাশাপাশি শনাক্ত হয়েছে ২৬ হাজার ৭৪০ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত আট কোটি ৪২ লাখ ৯ হাজার ৪৭৩ জন এবং মারা গেছেন ১০ লাখ ২৬ হাজার ৬৪৬ জন।

জার্মানিতে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ৯২৯ জন এবং মারা গেছেন ৯৮ জন। এ নিয়ে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত দুই কোটি ৫৭ লাখ ৭৪ হাজার ৫০৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৩৭ হাজার ৯০৭ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফ্রান্সে শনাক্ত ৩০ হাজার ৪৫৯ জন। তবে এ সময়ে দেশটিতে করোনায় কেউ মারা যাননি। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত দুই কোটি ৯১ লাখ ৬০ হাজার ৮০২ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৪৭ হাজার ২৫৭ জন।

একই সময়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় সংক্রমিত ২৯ হাজার ৫৪১ জন এবং মারা গেছেন ৫৫ জন। পূর্ব এশিয়ার এ দেশটিতে মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত এক কোটি ৭৭ লাখ ৫৬ হাজার ৬২৭ জন এবং মারা গেছেন ২৩ হাজার ৬৬১ জন।

একদিনে ইতালিতে ৩৬ হাজার ৪২ জন সংক্রমিত হওয়ার পাশাপাশি মারা গেছেন ৯১ জন। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট সংক্রমিত এক কোটি ৭০ লাখ ৩০ হাজার ১৪৭ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৬৫ হাজার ১৮২ জন।

সংক্রমণের দিক থেকে তৃতীয় এবং মৃত্যুর সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ১৭ হাজার ৩৫৫ জন এবং মারা গেছেন ৯০ জন। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট সংক্রমিত তিন কোটি ছয় লাখ ৮২ হাজার ৯৪ জন এবং মারা গেছেন ছয় লাখ ৬৪ হাজার ৯২০ জন।

এছাড়া সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুর সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন এক হাজার ৯১০ জন। তবে এসময়ে ভাইরাসটিতে কারও মৃত্যুর তথ্য পাওয়া যায়নি। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট সংক্রমিত চার কোটি ৩১ লাখ ২১ হাজার ২২ জন এবং মারা গেছেন পাঁচ লাখ ২৪ হাজার ২০১ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে কারো মৃত্যু হয়নি। এ নিয়ে টানা ২৪ দিন দেশে কোনো করোনা রোগী মারা যাননি।

সবশেষ গত ২০ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত হয়ে দেশে একজনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ফলে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২৯ হাজার ১২৭ জনেই রয়েছে।

একই সময়ে করোনা আক্রান্ত হিসেবে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২২ জন। এ নিয়ে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৯৭৯ জনে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৭টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)।

আন্তর্জাতিক শীর্ষ খবর