নতুন ধানের জাত সংরক্ষণে ফলন বৃদ্ধি করতে হবে : কৃষিমন্ত্রী

নতুন ধানের জাত সংরক্ষণে ফলন বৃদ্ধি করতে হবে : কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আবহমানকাল থেকে বাংলাদেশের মানুষ ভাত খেতে পছন্দ করে। আমাদের প্রধান খাদ্য ভাত। কৃষিবিজ্ঞানীরা মানুষের পুষ্টি চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে জিংক, আয়রনসহ নানা পুষ্টি উপাদান সংযুক্ত করে ধানের নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেন। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু ধান ১০০ উল্লেখযোগ্য।

নতুন ধানের জাত সংরক্ষণে ফলন বৃদ্ধি করতে হবে। যেন এই ধানের জাত সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়া যায়।

রবিবার সকালে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি), আঞ্চলিক কার্যালয় কুমিল্লার নতুন ভবন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সব প্রতিষ্ঠানের প্রধানদেরকে ব্রি ধান ৮৪, ব্রি ধান ৮৮, ব্রি ধান ৮৯ এবং ব্রি ধান ৯২-এর বীজ উৎপাদন করে ধানের ফলন বৃদ্ধি করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন তিনি। বিশেষ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু ধান ১০০ উৎপাদনের প্রতি বিশেষ নজর দেওয়ার তাগিদ দেন তিনি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষিসচিব মো. সায়েদুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মো. বেনজির আলম, ব্রির মহাপরিচালক ড. মো. শাহজাহান কবীর, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কুমিল্লার উপপরিচালক মো. মিজানুর রহমান, ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট কুমিল্লার মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর