শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা ভাবছি না : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা ভাবছি না : শিক্ষামন্ত্রী

করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের ধারাতে সরকার এখনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা ভাবছে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ রবিবার (১৬ জানুয়ারি) সাভারের বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (পিএটিসি) সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান। এদিন দুপুরের আগে পিএটিসি-তে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি।

দিপু মনি বলেন, ‘যতটুকু সম্ভব জীবন স্বাভাবিক রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু রয়েছে। তবে যদি তেমন বড় প্রয়োজন দেখা দেয় আমরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবো।’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) যেভাবে সিদ্ধান্ত নেয়, সেটা ভাবা হবে। আমরা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে কথা বলেছি। সেখানে তারা জানিয়েছেন, তারা নিয়মিত মনিটরিং করছেন। স্বাস্থ্যবিধি খুব কঠোরভাবে তারা মানার চেষ্টা করছেন। এরমধ্য দিয়ে কোথাও তারা কোনো সংক্রমণের আশঙ্কা দেখছেন না। সে কারণেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলা আছে।’

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সরকারি বেসরকারিসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষার্থী পরিচয় নিয়ে গেলেই টিকা পাবেন। এখানে কাউকেই বাদ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

বিশ্ববিদ্যালয় খোলা বা বন্ধ রাখার প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত। আমরা বলতে চাই যতটা সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাভাবিক জীবনযাপন রেখে আমরা করোনার প্রকোপ মোকাবিলা করবো। এটিই আমাদের সিদ্ধান্ত। যদি তেমন প্রয়োজন দেখা দেয়, তবে নিশ্চয়ই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত আমরা যেভাবে পর্যবেক্ষণ করছি, তাতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।’

শিক্ষার্থীদের টিকাদানে অব্যবস্থাপনার প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের টিকাদানে এখনো যেভাবে চিন্তা করা হয়েছে, সেভাবেই চলবে। যদি ভিন্ন কোনোভাবে নেওয়ার প্রয়োজন হয়, সেটা করা হবে।’

বই বিতরণের বিষয়ে অনিয়মের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাহিদার ভিত্তিতে বিনামূল্যে বই পৌঁছে দেওয়া হয়। বই বিতরণে কোনো অনিয়মের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর