‘ফজলুল হক মনির লেখনি যুবসমাজের জন্য পাথেয় হয়ে থাকবে’

‘ফজলুল হক মনির লেখনি যুবসমাজের জন্য পাথেয় হয়ে থাকবে’

শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির লেখনি যুবসমাজের জন্য পাথেয় হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

আজ শনিবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে বনানী কবরস্থানে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির কবরে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি কখনোই সত্য প্রকাশে দ্বিধা করেননি। লেখনির মাধ্যমে জাতি গঠনে ভূমিকা রাখার পাশাপাশি মুজিববাদের কার্যক্রম তিনি তুলে ধরেছেন। এ ছাড়া মুজিববাদের নীতি-আদর্শ কি হবে এবং মুজিববাদ বিস্তারে সংগঠনের নেতাকর্মীদের কি করতে হবে, সে ব্যাপারে তিনি তার লেখনির মাধ্যমে পরামর্শ ও দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। জাতি গঠনে যুবসমাজকে কীভাবে নিয়োজিত করা যায়, সে বিষয়ে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি যে সব নির্দেশনা রেখে গেছেন তা বর্তমান প্রজন্মের কাছে পাথেয় হয়ে থাকবে।

তাপস বলেন, তিনি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে ছাত্রলীগের যে নিউক্লিয়াস গঠন করা হয়েছিল, যাদের দিয়ে ভবিষ্যতে মুক্তিযুদ্ধের রণাঙ্গনের যুদ্ধ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হবে, সেই নিউক্লিয়াসের অন্যতম সংগঠক শেখ ফজলুল হক মনি। তিনি ৬ দফা আন্দোলন, মুক্তি সংগ্রামে সরাসরি অংশগ্রহণ করেছেন। জাতির পিতার নির্দেশে মুজিব বাহিনী গঠন এবং রণাঙ্গনে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন।

ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, দৈনিক বাংলার বাণী, দৈনিক বাংলাদেশ টাইমস এবং সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন সিনেমা চালু করেন। তিনি অনুধাবন করেছিলেন, মেধাভিত্তিক জাতি গঠনে লেখনি অন্যতম ভূমিকা পালন করে এবং সে জন্য তিনি সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়েছিলেন। এছাড়াও জাতি গঠনে যুব সমাজকে সুসংগঠিত করতে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

মেয়র বলেন, শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির মাত্র ৩৫ বছরের জীবনকালে তিনি প্রায় ৯ বছর কারাগারে কাটিয়েছেন। দেশবাসী ও দলকে সংগঠিত করতে হুলিয়া নিয়েও তিনি বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত ঘুরে বেড়িয়েছেন। ১৯৭৫ সালে জাতির পিতার সঙ্গে তিনি শাহাদাতবরণ করেছেন। আজকের দিনে তার প্রতি আমি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি, আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

এ সময় করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহম্মদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী মোর্শেদ হোসেন কামাল, করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ফজলে শামসুল কবির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর