রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ম্যানইউয়ের অসাধারণ জয়

রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ম্যানইউয়ের অসাধারণ জয়

ঘরের মাঠে বৃহস্পতিবার শুরুটা খুব একটা ভাল ছিল না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। তবে একটা পর্যায়ে দুর্ঘটনাবশত পিছিয়ে পড়ে তারা। এরপরই দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায়। বিরতির ঠিক আগে সমতায় ফেরে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটি। বিরতির পর ৮০০ ছোঁয়া গোল করে দলকে এগিয়ে নেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পরক্ষণেই পাল্টা জবাব আর্সেনালের। তবে ইতিহাস গড়ার ম্যাচে পাদপ্রদীপের আলোটা নিজের ওপরই রাখলেন ক্রিশ্চিয়ানো। পরে আরেকটি গোল করে দলকে এনে দিলেন অসাধারণ এক জয়।

বৃহস্পতিবার রাতে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ম্যানইউ জিতেছে ৩-২ গোলে। লিগে টানা তিন ম্যাচে জয়শূন্য থাকার পর জয়ের হাসি হাসল ইউনাইটেড। এই নিয়ে শেষ ৯ ম্যাচে পাঁচটি হার ও দুটি ড্রয়ের পাশে তাদের জয় মাত্র দুটি।

এমিলি স্মিথের গোলে আর্সেনাল এগিয়ে যাওয়ার পর সমতা টানেন ইউনাইটেডের ব্রুনো ফের্নান্দেস। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই রোনালদো স্বাগতিকদের এগিয়ে নেওয়ার পরপরই সমতা টানেন মার্টিন ওডেগোর। পরের পেনাল্টি গোলে ব্যবধান গড়ে দেন রোনালদো।

ম্যাচের প্রথম প্রথমে আক্রমণে চাপ ধরে রেখেই ত্রয়োদশ মিনিটে জালে বল পাঠায় আর্সেনাল। তবে বিতর্কিত গোলটির বাঁশি বাজতে লেগে যায় তিন মিনিট। পরে তেতে ওঠে ম্যানইউ। কয়েকটি ভালো আক্রমণ করলেও নিশ্চিত সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না তারা। অবশেষে ৪৪তম মিনিটে পাসিং ফুটবলে গড়া আক্রমণে ফ্রেদের ছোট পাস পেয়ে ১০ গজ দূর থেকে প্রথম ছোঁয়ায় গোলটি করেন ফের্নান্দেস।

বিরতির পর ৫২তম মিনিটে রোনালদো করেন ইতিহাস গড়া গোল। ডান দিক থেকে মার্কাস র‌্যাশফোর্ডের পাস পেয়ে ১০ গজ দূর থেকে কোনাকুনি শটে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি। পা রাখলেন ৮০০ ক্যারিয়ার গোলের চূড়ায়।

পাল্টা জবাব দিতে অবশ্য মোটেও দেরি করেনি আর্সেনাল। গার্বিয়েল মার্তিনেল্লির বাড়ানো বল পেনাল্টি স্পটের কাছে পেয়ে ডান পায়ের শটে স্কোরলাইন ২-২ করেন ওডেগোর।

ইউনাইটেডের জয়সূচক গোলটি আসে ৭০তম মিনিটে। ইউনাইটেডের ফ্রেদকে ডি-বক্সে ওডেগোর ফাউল করলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সফল স্পট কিকে দলকে এগিয়ে নেন রোনালদো। শেষ পর্যন্ত সেটিই ব্যবধান গড়ে দেয়।

নির্ধারিত সময় শেষের দুই মিনিট আগে রোনালদোকে তুলে নেন কোচ মাইকেল ক্যারিক। তাকে শেষ কয়েক মিনিটে না পেলেও ইউনাইটেডের জন্য তা কোনো ভাবনার কারণ হয়নি।

এ জয়ে ১৪ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে উঠেছে ইউনাইটেড। সাত জয় ও দুই ড্রয়ে ২৩ পয়েন্ট বেশি নিয়ে পঞ্চম স্থানে আর্সেনাল। ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে চেলসি। ম্যানচেস্টার সিটি ৩২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ও লিভারপুল ৩১ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে। চার নম্বরে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের্ পয়েন্ট ২৪।

খেলাধূলা শীর্ষ খবর