নতুন ২ দলের কাছ থেকে সাড়ে ১২ হাজার কোটি রুপি পাচ্ছে আইপিএল

নতুন ২ দলের কাছ থেকে সাড়ে ১২ হাজার কোটি রুপি পাচ্ছে আইপিএল

চলছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীসহ বেশিরভাগ কর্মকর্তা এখন সংযুক্ত আরব আমিরাতে। এর মাঝেও থেমে নেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) কার্যক্রম। আগামী মৌসুম থেকে ১০ দলের আইপিএলের বাকি দুই দল চূড়ান্তের কাজটি সেখানেই বসেই করে ফেলল বিসিসিআই।

নিলাম থেকে নতুন দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজি বেছে নিয়েছে বিসিসিআই। দুই দলের মালিকানা স্বত্ব বিক্রি বাবদ বিসিসিআই যে অর্থ পাচ্ছে, সেটার পরিমাণ শুনে আতকে উঠবেন যে কেউই। নতুন দুই দল বিক্রি হয়েছে ১২ হাজার ৭১৫ কোটি রুপিতে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১৪ হাজার ৫১৪ কোটি টাকা।

৭ হাজার ৯০ কোটি রুপিতে আরপিএসজি গ্রুপ মালিকানা পেয়েছে লক্ষ্ণৌয়ের। ৫ হাজার ৬২৫ কোটিতে আহমেদাবাদের মালিকানা পেয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থা সিভিসি ক্যাপিটালস। আরপিএসজি এর আগেও আইপিএলের দলের মালিকানায় ছিল। ২০১৬ ও ২০১৭ সালে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্ট নামের দলটি ছিল তাদের মালিকানায়।

২০০৮ সাল থেকে আট দলের অংশগ্রহণে শুরু হয় আইপিএল। ২০১১ আসরে ১০ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির জমজমাট এই আসরটি। পরের দুই বছরে অংশ নেয় ৯টি করে দল। পরের আসরগুলোয় আটটি করে দল অংশ নেয়। সামনের আসর থেকে আইপিএল আবারও ১০ দলের হতে যাচ্ছে।

নতুন দুই ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য ভিত্তিমূল্য ২ হাজার কোটি রুপি নির্ধারণ করেছিল বিসিসিআই। সেখানে আরপিএসজি বিড করেছে ভিত্তিমূল্যের সাড়ে তিন গুণ। আর সিভিসি আড়াই গুণ। দল দুটির জন্য মোট ২২টি কোম্পানি দরপত্র কিনেছিল। চূড়ান্ত পর্যায়ের জন্য ৯টিকে কোম্পানিকে বেছে নেওয়া হয়।

সোমবার দুবাইয়ে প্রায় ছয় ঘণ্টা ধরে চলা নিলামের লড়াইয়ে জয়ী দুটি প্রতিষ্ঠান ছাড়াও ছিল আদানি গ্রুপ, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিক গ্লেজার পরিবার, উদয় কোটাক, অল কার্গো লজিস্টিক্স, টরেন্ট ফার্মার মতো নামকরা প্রতিষ্ঠান।

খেলাধূলা শীর্ষ খবর