সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টিকারী কেউই রেহাই পাবে না : শিক্ষা উপমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টিকারী কেউই রেহাই পাবে না : শিক্ষা উপমন্ত্রী

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, সকল ধর্মের মধ্যে সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক ও ভালোবাসা দিয়ে প্রমাণ করব বাংলাদেশ অসম্প্রদায়ীক দেশ।

এ পরিস্থিতিকে যারা অশান্তি করার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে আমরা মাঠে নেমেছি। তাদের শাস্তির আয়তায় আনা হবে। কেউ রেহাই পাবে না। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল।

বুধবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরীর নন্দকানন মন্দিরে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা ফানুস উড়িয়ে উদ্বোধন শেষে নওফেল এসব কথা বলেন।

নওফেল বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় সব শ্রেণি পেশার মানুষ একত্রিত হয়ে দেশ স্বাধীন করেছে। সাংবিধানিকভাবে বাংলাদেশ সকল ধর্মের সম্মেলনে পরিণত হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল আরো বলেন, বাংলাদেশেকে বিশ্বের বুকে সাম্প্রাদায়িক হিসেবে তুলে ধরতে মন্দির, ঘরবাড়িতে হামলা করে ষড়যন্ত্র করছে। শারদীয় দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে।

এ ঘটনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দ্রুততম সময়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী হার্ডলাইনে গিয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ায় সাম্প্রদায়িক অপশক্তি তাদের নীলনক্সা বাস্তবায়নে এগোতে পারেনি।

যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের আইনের আওতায় আনতে প্রশাসন কাজ করছে। ইতোমধ্যে অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৭ কোটি মানুষের দেশে মাত্র আড়াই লক্ষ পুলিশ দিয়ে শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতের কাজ করছে। ভবিষ্যতে এর চেয়ে আরও ভালো নিরাপত্তা দিতে পারব।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিএমপির উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বিজয় বসাক। উপস্থিত ছিলেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বিদ্যুৎ বড়ুয়াসহ প্রবরণা পূর্ণিমা উৎযাপনের পরিষদের নেতারা।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর