শিক্ষার্থীদের করোনা সংক্রমণের বিষয়ে সতর্ক সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষার্থীদের করোনা সংক্রমণের বিষয়ে সতর্ক সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

মানিকগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া শিক্ষার্থীর সংস্পর্শে আসা অন্যদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি।

এরমধ্যে কেউই শনাক্ত হয়নি। আজ বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাক্তার মিলন হলে অধ্যাপক ডাক্তার জোহরা বেগম কাজীর স্মরণসভায় তিনি এসব জানান।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সারা দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি মনিটরিং করা হচ্ছে। আর এখনই স্কুল বন্ধ করার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, স্কুলে অভিভাবক ও শিক্ষকদের স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে সচেতন থাকতে হবে। শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে উপস্থিতির বিষয়ে চাপ দেয়া যাবে না।

এসময় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি আরও বলেন, ‘আমরা মানিকগঞ্জের যে তথ্যটি পেয়েছিলাম তার সংস্পর্শে যারা এসেছিল সেই শ্রেণীর সকল শিক্ষার্থীর করোনা টেস্ট করা হয়েছে, তাদের সবারই করোনা নেগেটিভ এসেছে। এ সংক্রান্ত কোন খবর পাওয়া মাত্রই আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

এর আগে, করোনার উপসর্গ নিয়ে মানিকগঞ্জ এসকে সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী সুবর্ণা ইসলাম রোদেলা মারা যায়। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে মানিকগঞ্জ থেকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায় সে। তিনদিন ধরে রোদেলার জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট হচ্ছিলো। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে মারাত্মকভাবে শ্বাসকষ্ট, গলা ও বুকে ব্যথা উঠে অচেতন হয়ে পড়ায় তাকে দ্রুত মুন্নু জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষায় তার করোনা ধরা পড়ে। তার শরীরের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে দ্রুত রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

এদিকে, গোপালগঞ্জ পৌরসভার ১০২ নং বীণাপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মোনালীসা ইসলামের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর স্থানীয় প্রশাসন ওই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীর ওই কক্ষটি বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়াও একই জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার ৪ নং ফেরধরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যারয়ের তৃতীয় শ্রেনীর এক শিক্ষার্থীর করোনা পজেটিভ আসে। তাকে নিজ বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর