শেখ হাসিনাই সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করছেন : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

শেখ হাসিনাই সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করছেন : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মুরাদ হাসান এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে একমাত্র শেখ হাসিনাই সাংবাদিক কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। এই কল্যাণ ফান্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ আর্থিক সহায়তা সাংবাদিকদের প্রদান করা হচ্ছে। যে কোন মুল্যে এর ধারাবাহিকতাও রক্ষা করা হবে। তিনি আরো বলেন-আমি মন্ত্রীর পরিচয়ে নয়, সাংবাদিক পরিবারের লোক হিসেবেই বেঁচে থাকতে চাই। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েছি। শেখ হাসিনার মায়ার জালে আবদ্ধ হয়েছি। বঙ্গবন্ধুর সহচর পিতা এডভোকেট মতিউর রহমান তালুকদারের নীতিতে মুগ্ধ হয়েছি। এর উপর অটল থাকতে চাই। আমি কোন পদের লোভী নই। আওয়ামী লীগের সামান্য একটু কর্মী হওয়াটাই বড় অর্জন। যে কোন মুল্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া দায়িত্বের পবিত্রতা রক্ষা করতে আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনারা সত্য-সুন্দর-গঠনমূলক সংবাদ এবং সমালোচনা করবেন। এ সময় তিনি জামালপুর উন্নয়নের রূপকার মির্জা আজম এমপি’র অবদানকে শ্রদ্ধা জানান।

তিনি ১৬ সেপ্টেম্বর রাত ৯টায় জামালপুর জেলা প্রেস ক্লাবের সদস্য-ডেইলি স্টারের প্রয়াত সাংবাদিক অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম লিটনের পরিবারের মাঝে জেলা প্রেস ক্লাবের ৫০ হাজার টাকা অনুদানের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি প্রয়াত সাংবাদিকের পরিবারের প্রতি তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ১ লাখ টাকার অনুদানসহ সকল ধরণের সহায়তার আশ^াস দিয়ে; মন্ত্রী আরো বলেন-চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের মাজার থাকতে পারে না। জিয়াউর রহমানের লাশওতো সেখানে দাফন করা হয়নি। জিয়ার নামে একটা বাক্সকে লাশ বানিয়ে কবর দেয়া হয়েছে। জিয়া বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় নেতাদের হত্যা করেছে। তার মরনোত্তর বিচার দাবি করছি। পবিত্র সংসদ এলাকায় কোন খুনির মাজার থাকতে পারে না। জিয়া কি কোন আলেম, নাকি পীর, নাকি দরবেশ? তার নামে মাজার কিসের? বেগম জিয়া একজন অর্ধ শিক্ষিত। তারেকও তাই। সে একজন অপরাধি হয়ে লন্ডনে বসে বসে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে। কথা বার্তায় কোন সভ্যতার ছোয়া নেই। তারেক আদালত কর্তৃক দোষি। এ কথা কে না জানে? কোন ষড়যন্ত্রই বাংলাদেশ এবং আওয়ামী লীগের ক্ষতি করতে পারবে না।

জামালপুর জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এডভোকেট ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ টুডের প্রতিনিধি এম. সুলতান আলম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, ডিবিসি-বাংলাদেশ প্রতিদিনের জেলা প্রতিনিধি শুভ্র মেহেদী, সদস্য, বকশীগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি ইত্তেফাক সাংবাদিক এম শাহীন আল আমীন, ইত্তেফাক-নিউ নেশনের সংবাদদাতা ও মেলান্দহ রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি শাহ জামাল, মোহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি ওসমান হারুনী, বাংলাদেশ বেতার-এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি ফজলে এলাহী মাকাম প্রমুখ।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর