ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর পেছাল ১৮ মাস

ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর পেছাল ১৮ মাস

একদিন আগেই সফর স্থগিতের খবর পাওয়া গিয়েছিল। জানা গিয়েছিল, আগামী সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশে আসবে না ইংল্যান্ড। তিন টি-টোয়েন্টি ও তিন ওয়ানডের সেই সফর অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হওয়ার খবর প্রকাশ করে ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন-ক্রিকইনফো। তবে একদিন পরই মঙ্গলবার জানা গেল নতুন সূচি।

আজ মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) আবার নতুন খবর এলো যে, সিরিজটি পিছিয়ে গেছে প্রায় দেড় বছর। ২০২৩ সালের মার্চে মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজটি।

মঙ্গলবার দুপুরে এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে খবরটি নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। তারা বলছে, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতে তারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নতুন সূচির ব্যাপারে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, ২০২৩ সালের মার্চে তারা বাংলাদেশ সফরে আসবে। মার্চের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে সফর, ম্যাচগুলো হবে মিরপুর ও চট্টগ্রামের দুটি ভেন্যুতে। আগের সূচি অনুযায়ী সফরে তিনটি ওয়ানডের পাশাপাশি, তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে দুদল।

এ বছরের সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে হওয়ার কথা ছিল সীমিত ওভারের সিরিজ দুটি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক যেহেতু ছিল ভারত, তাই ওই দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের কন্ডিশনের মিল থাকায় কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপের ‘প্রস্তুতি’ পর্ব সারার পরিকল্পনা ছিল ইংলিশদের। বিশ্বকাপ ভারত থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে সরে গেলেও নির্ধারিত সূচিতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল ইংল্যান্ড দলের। কিন্তু সফরটি অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যাচ্ছে আইপিএলের কারণে!

আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে যখন বাংলাদেশে সফর ছিল, সেই সময় সংযুক্ত আবর আমিরাতে হবে আইপিএলের দ্বিতীয় পর্ব। যেহেতু মরুর দেশেই হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, তাই আইপিএলকে বেছে নিয়েছে ইসিবি। কারণ সেখানে ইংল্যান্ডের এক ঝাঁক ক্রিকেটার থাকবেন, তাই বাংলাদেশকে তারা না করে দিয়েছিলেন। তবে অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এই সফরটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল বাংলাদেশের জন্য। শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খেলেই বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে হবে বাংলাদেশকে।

খেলাধূলা শীর্ষ খবর