আলোচনায়ও এগিয়ে আফরান নিশো

আলোচনায়ও এগিয়ে আফরান নিশো

কথায় বলে যার কাজ বেশি, তার ভুলও হয়। বলা যেতে পারে গত কয়েক বছরের হিসাবে সবচেয়ে বেশি নাটকের অভিনেতা আফরান নিশো।

গত ঈদেও অনেকগুলো নাটক নিয়ে হাজির হয়েছেন নিশো। তার মধ্যে ‘ঘটনা সত্য’ নাটকটি এ অভিনেতাকে সমালোচনার মুখে ফেলেছে।

অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে সবার কাছে ‘সরি’ বলেছেন নিশো।

এ নাটকটিতেও নিশোর অভিনয় নিয়ে প্রশংসার কমতি নেই। বরাবরের মতো এখানেও অভিনয়ের মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন তিনি।

এর পাশাপাশি আরও বেশকিছু নাটক ঈদে প্রচার হয়েছে, যেখানে নিশো ছিলেন অনবদ্য।

এবারের ঈদে বেশ কয়েকটি নাটক মানসম্মত ছিল। দর্শকের প্রশংসা পেয়েছে। তাদের ভিড়ে নিশোর কিছু নাটকও উল্লেখযোগ্য। সোশ্যাল মিডিয়ায় কান পাতলে শোনা যায়, সমালোচনার পরও এবারের ঈদের শীর্ষ আলোচিত অভিনেতা তিনিই।

সব ধরনের দর্শকের কাছেই এবার নিশো ছিলেন দারুণভাবে সমাদৃত। সমালোচকদের দৃষ্টিতে যেমন- জনপ্রিয়তার বিচারেও তেমনই সেরা অভিনেতার তকমা জুটেছে এবারের কাজগুলো থেকে।

সমালোচকদের চোখে এবার নিশোর প্রশংসিত নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘চিরকাল আজ’, ‘কায়কোবাদ’, ‘পুনর্জন্ম’ প্রভৃতি। তিনটি নাটকই নির্মাণ করেছেন ভিকি জাহেদ। আবার কাজল আরেফিন অমির ‘আপন’ সব ধরনের দর্শকের ভালো লেগেছে।

ভিউয়ের বিচারেও এবার সেরা নিশো। তার অভিনীত মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘হ্যালো শুনছেন’ এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ভিউ পাওয়া নাটক। নাটকটি ৪ মিলিয়নের বেশি দর্শক এরই মধ্যে দেখেছে।

আবার সবচাইতে দ্রুতগতির ভিউয়ের নাটকও তার। জাকারিয়া সৌখিনের ‘এক মুঠো প্রেম’ এবার ১২ ঘণ্টায় মিলিয়ন ভিউ পার করেছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দ্রুত ভিউ পাওয়া নাটকটিও তার- ‘হ্যালো শুনছেন’। এই নাটকটি ১৬ ঘণ্টায় মিলিয়ন পার করেছে।

সব মিলিয়ে এবার সেরা একটি ঈদ পার করেছেন আফরান নিশো। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি প্রতিনিয়ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। চেষ্টা করে যাচ্ছি ভালো কিছুর আশায়। এভাবে নিয়মিত শিখছিও। সুতরাং মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এভাবেই চেষ্টা করে যেতে যাই, শিখে যেতে চাই।’

এবারের ঈদে আফরান নিশোর সবচাইতে ভালো গেলেও তিনি এবারই সবচাইতে কম নাটকে অভিনয় করেছেন। লকডাউনের কারণে তিনি খুব বেশি নাটকে অভিনয় করতে পারেননি। মাত্র ১০টি নাটকে অভিনয় করেছেন।

বিনোদন শীর্ষ খবর