কাতারের অর্থমন্ত্রী গ্রেপ্তার

কাতারের অর্থমন্ত্রী গ্রেপ্তার

অর্থ আত্মসাৎ, ক্ষমতার অপব্যবহারসহ সরকারি খাতে অন্যান্য অপরাধের অভিযোগে কাতারের অর্থমন্ত্রী আলি শেরিফ আল-এমাদিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কিউএনএ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ খবর জানিয়েছে।

সংস্থাটি জনায়, বিভিন্ন নথি ও রিপোর্ট পর্যালোচনা করে দেখার পর আল-এমাদিকে গ্রেপ্তারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন কাতারের এটর্নি জেনারেল। এমাদির বিরুদ্ধে অভিযোগের বিস্তারিত তদন্ত চলছে।

অবশ্য প্রভাবশালী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের ঘটনা কাতারে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও দুর্নীতির মামলায় বড় বড় কর্তা ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের ঘটনা ঘটেছে দেশটিতে। তবে বর্তমান আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানির আমলে এটাই প্রথম প্রভাবশালী কোনো ব্যক্তির গ্রেপ্তারের ঘটনা।

রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এক বার্তায় জানিয়েছে, অ্যাটর্নি জেনারেলের নির্দেশে অর্থমন্ত্রী আলী শরীফ আল-এমাদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় সম্পদের অপব্যবহার, ক্ষমতার অপব্যবহার ও জনগণের অর্থ তছরুপ করার মতো অপরাধের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে।

আলি শরিফ আল এমাদি কাতারের অন্যতম শীর্ষ ব্যবসায়ী ও অর্থনীতিবিদ। তিনি ২০১৩ সাল থেকে মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটির অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এর আগে তিনি কাতার ন্যাশনাল ব্যাংকেও কাজ করেছেন। তিনি কাতারের বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষের ৩০ কোটি ডলারের সার্বভৌম তহবিলের পর্ষদ সদস্য।

অর্থনীতিতে বৈচিত্র্য আনা, ২০১৪-১৫ সালে জ্বালানি তেলের রেকর্ড দরপতনের সময় কার্যকর নীতি প্রণয়নের মাধ্যমে কাতারের জ্বালানিনির্ভর অর্থনীতিকে টিকিয়ে রাখার জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন আল এমাদি। ২০২০ সালে তিনি উপসাগরীয় অঞ্চলের সেরা মন্ত্রী হিসেবে পুরস্কৃত হন।

আন্তর্জাতিক শীর্ষ খবর