আগামীকাল থেকে জেলায় জেলায় চলবে বাস

আগামীকাল থেকে জেলায় জেলায় চলবে বাস

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলমান কঠোর লকডাউন আরও ১১ দিন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। আজ বুধবার এটি জারি করা হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লকডাউন চলবে আগামী ১৬ মে মধ্যরাত পর্যন্ত। বিধিনিষেধের এই সময়ে আগের মতোই রেল ও যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে আন্তঃজেলা গণপরিবহনও। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে জেলার মধ্যে গণপরিবহন চলবে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি রোধে কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় ধাপে ১৪ এপ্রিল থেকে দেশে জরুরি কাজ ছাড়া ঘরের বাইরে বের হওয়ার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়, যা ‘সর্বাত্মক’ লকডাউন নামে পরিচিতি পায়।

এই বিধিনিষেধের মধ্যে জরুরি সেবা দেওয়া প্রতিষ্ঠান ছাড়া সরকারি-বেসরকারি অফিস ও গণপরিবহন আগের মতই বন্ধ আছে। তবে উৎপাদনমুখী শিল্প কারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ চালাতে পারবে।

শুরুতে লকডাউনে শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশনা থাকলেও ‘জীবন-জীবিকার কথা বিবেচনা করে’ গত ২৫ এপ্রিল থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান, শপিংমল খোলা ও বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালু করা হলেও রেলপথে ও গণপরিবহনে যাত্রী পরিবহন এখনও বন্ধ রয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে গণপরিবহন চালুর দাবিতে গত রোববার সারা দেশে বিক্ষোভ করেন সড়ক পরিবহন শ্রমিকরা। এরপর লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে জেলায় জেলায় বাস চলাচলের অনুমতি মেলে সরকারের পক্ষ থেকে।

বুধবার জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, আন্তঃজেলা গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। তবে বুধবারের (৫ মে) পর যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন সাপেক্ষে জেলার অভ্যন্তরে গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে। তবে জেলার মধ্যে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে কোনো সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়নি প্রজ্ঞাপনে।

জেলার মধ্যে বাস চলাচল এবং আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ রাখার বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবের কাছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ শীর্ষ খবর