ভারতের বাইরে ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিকল্পনা সেরামের

ভারতের বাইরে ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিকল্পনা সেরামের

ভারতের বাইরে ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিকল্পনা করছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট। ভ্যাকসিনের উৎপাদন আরও বাড়াতে সংস্থাটি এই পরিকল্পনা করছে বলে শনিবার (১ মে) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স।

সেরাম ইনস্টিটিউটের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) আদর পুনেওয়ালা জানিয়েছেন, ভারতজুড়ে কোভিশিল্ডের সরবরাহে সমস্যা হচ্ছে। উৎপাদন আরও বাড়াতে হবে। আর তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই সংস্থার পক্ষ থেকে এ বিষয়ে ঘোষণা দেওয়া হবে বলেও শুক্রবার জানান তিনি। যদিও কী ঘোষণা দেওয়া হবে, বা ভারতের বাইরে কোন দেশে ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে; সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।

গত সপ্তাহে সংস্থাটির এই শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছিলেন, আগামী জুলাই মাসের মধ্যে প্রতি মাসে ১০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদনের করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে সেরাম। যদিও ভ্যাকসিন সংকটের কারণে মে মাসের মধ্যেই সেই লক্ষ্যমাত্রা পূরণের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে পরে জানিয়েছিলেন তিনি।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে ভয়াবহভাবে বেড়েই চলেছে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন ৩ হাজার ৫২৩ জন। মহামারি শুরুর পর থেকে দেশটিতে প্রথমবারের মতো দৈনিক সংক্রমণ ছাড়িয়েছে চার লাখের ঘর।

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতজুড়ে একযোগে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। শুরু থেকেই বেশ জোর গতিতে ভ্যাকসিন প্রয়োগের কার্যক্রম চললেও এপ্রিলের শেষের দিকে দেশটিতে ভ্যাকসিনের স্বল্পতা দেখা দেয়। আর তাই ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে আগামী ৬ মাসের মধ্যে ভ্যাকসিন উৎপাদনের বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রা ২৫ কোটি থেকে ৩০ কোটি নির্ধারণ করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট।

আন্তর্জাতিক শীর্ষ খবর