বাহরাইন থেকে আসা ১৩৮ বাংলাদেশি কোয়ারেন্টিনে

বাহরাইন থেকে আসা ১৩৮ বাংলাদেশি কোয়ারেন্টিনে

বাহরাইন থেকে দেশে ফিরেছেন ১৩৮ জন বাংলাদেশি শ্রমিক। তারা সবাই দেশটিতে অবৈধভাবে বসবাসসহ শ্রম আইন লঙ্ঘনের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত। 

সম্প্রতি বিশেষ ক্ষমায় তাদের জেল থেকে মুক্তি দিয়েছে বাহরাইন সরকার। এরপর তাদের নিয়ে রবিবার বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে গাল্ফ এয়ারের একটি বিশেষ ফ্লাইট ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।

কূটনৈতিক সূত্র জানায়, করোনার কারণে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো তাদের নিজ নিজ জেলখানা ও ডিটেনশন সেন্টারগুলো খালি করার অংশ হিসাবে আজ ১৩৮ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠিয়েছে বাহরাইন। তারা আগেই মুক্তি পেয়েছিলেন। রবিবার তাদের উড়োজাহাজে তোলা হয়েছে।

মানামায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, প্রাথমিক অবস্থায় ১৫০ বাংলাদেশির দণ্ড কমিয়ে মুক্তি দেওয়া হলেও স্বাস্থ্য পরীক্ষা বিশেষ করে কভিড-১৯ এর উপসর্গ থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত ১৩৮ জনকে বিমানে তোলা হয়েছে। বাকীদের যখন সময় হবে তখন দেশে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি। 

এদিকে গত শুক্রবার মাস্কাটের জেলে থাকা ২৮৮ জন বাংলাদেশিকে স্পেশাল ফ্লাইটে ঢাকায় পাঠিয়ে দেয় ওমান সরকার।

বিমানবন্দর সূত্রে জানা যায়, বাহরাইনে শ্রমিক হিসেবে তারা কাজ করতেন। অবৈধভাবে দেশটিতে বসবাস করায় বাহরাইন সরকার তাদের দেশে পাঠিয়েছে। 

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ এইচ এম তৌহিদ উল আহসান বলেন, বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে বাহরাইন থেকে ১৩৮ প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিক দেশে ফিরেছেন। তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

বিমান বন্দরের হেলথ ডেস্ক সূত্র জানায়, ১৩৮ জনের কভিড-১৯ সংক্রমণ নেই মর্মে সার্টিফিকেট আছে। তাই তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বাহরাইনে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৩৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ জন।

বাংলাদেশ