সামনে রোজা, ভিড় বাড়ছে টিসিবির ট্রাকে

সামনে রোজা, ভিড় বাড়ছে টিসিবির ট্রাকে

রমজানকে সামনে রেখে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ছে। তাই সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য কিনতে দিন দিন ভিড় বাড়ছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)-এর বিক্রয়কেন্দ্রে।

ন্যায্যমূল্যে ছোলা, চিনি, মসুর ডাল ও সয়াবিন তেল কিনতে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করছে ক্রেতারা। তারা বলছেন, বাজারে এসব পণ্যের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়াতেই টিসিবির ট্রাকে যাচ্ছে তারা। এতে আগের তুলনায় টিসিবির পণ্য শেষও হচ্ছে দ্রুত। ফলে অনেকে অপেক্ষা করেও পণ্য পাচ্ছে না।

এদিকে রোজা উপলক্ষে গতকাল সোমবার শুরু হয়েছে ১২০ টাকা কেজি দরে খেজুর বিক্রি। এর আগে চলতি সপ্তাহের শুরু থেকেই ছোলা বিক্রি শুরু হয় ৭০ টাকা কেজি দরে। তবে টিসিবির লাইনগুলোয় এখনো সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত হচ্ছে না। বিশেষ করে ট্রাকের সামনের দিকে জটলা দেখা যাচ্ছে বেশি। রাজধানীর মালিবাগ, মুগদা, রামপুরা, নয়াবাজার ও কেরানীগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ও খোঁজ নিয়ে এমন চিত্র পাওয়া যায়।

গতকাল বিকেল ৩টার দিকে মালিবাগ রেলগেট কাঁচাবাজারের কাছে ফ্লাইওভারের নিচে গিয়ে দেখা যায়, টিসিবি ট্রাকের সামনে দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে আছে ক্রেতারা। অনেকে লাইনে দাঁড়িয়ে জটলা পাকিয়ে গল্পগুজব করছে। অনেকের বাসা কাছে হওয়ায় প্লাস্টিকের মোড়া নিয়ে এসেছে বসার জন্য। লাইনের শেষ দিকে ফাঁকা হয়ে দাঁড়ালেও ট্রাকের কাছাকাছি এসে জটলা তৈরি হয়েছে। নারী ক্রেতারা ধাক্কাধাক্কি করছে পণ্য নিতে।

একই অবস্থা দেখা যায়, মুগদা হাসপাতালের সামনের ট্রাকেও। এখানে দীর্ঘ সারির পেছনের দিকে সাদা রং দিয়ে দাঁড়ানোর জায়গা নির্দিষ্ট করা রয়েছে। তবে বেশির ভাগই দাঁড়িয়ে আছে এলোমেলোভাবে। ট্রাকের সামনের দিকে জটলা করে পণ্য নিতে ভিড় জমিয়েছে ক্রেতারা। জানতে চাইলে সুমন নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘লাইনে ফাঁকা রাখলে মাঝখানে আরেকজন ঢুকে যায়। তাই কাছাকাছি দাঁড়িয়েছি।’ তবে বিক্রেতাদের এসব দেখার সময় নেই। তারা দ্রুত পণ্য দিয়ে ক্রেতাদের বিদায় করছেন।

সূত্র জানায়, দেশের ৪০০টি স্থান থেকে এসব পণ্য বিক্রি করছে টিসিবি। ঢাকা শহরের ৯০টি ও চট্টগ্রামে ৩০টি স্থানসহ প্রতিটি বিভাগ, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিক্রয় কার্যক্রম চলছে। এ জন্য প্রায় তিন হাজার ডিলার নিয়োগ করা হয়েছে। ট্রাকে করে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে আটটি ভ্রাম্যমাণ মনিটরিং টিম কাজ করে যাচ্ছে।

এদিকে টিসিবির পণ্য বিক্রি নিয়ে অনিয়ম করা হলে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

জানতে চাইলে টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির বলেন, ‘ডিলারদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য বিক্রি করার নির্দেশ দেওয়া আছে। কিন্তু সাধারণ মানুষকে বারবার বললেও সচেতন হয় না। যখন বলা হয় তখন ঠিকঠাক দাঁড়ায়। কিছুক্ষণ পর আবার আগের মতো হয়ে যায়। এসব অভিযোগ ট্রাকের বিক্রেতারা আমাদের কাছে করছেন।’

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আবদুল জব্বার মণ্ডল এ বিষয়ে বলেন, ‘আমরা টিসিবির বিক্রয় কেন্দ্রগুলোতেও অভিযান চালাচ্ছি। কোনোভাবে ভোক্তাকে ঠকানো হচ্ছে কি না সেটিও দেখছি। সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

বাংলাদেশ