লকডাউনে বাবার শেষকৃত্যে যাওয়া হল না যোগী আদিত্যনাথের

লকডাউনে বাবার শেষকৃত্যে যাওয়া হল না যোগী আদিত্যনাথের

করোনার লকডাউনে বাবার শেষকৃত্যে যোগ দিতে পারলেন না ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বাবার শেষকৃত্যে যেতে না পারার আক্ষেপে পুড়ছেন তিনি। সোমবার সকালে প্রয়াত হন যোগী আদিত্যনাথের বাবা আনন্দ সিং বিস্ত। ৭১ বছর বয়েসী আনন্দজী এইমস হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। এক সরকারি আমলার টুইটের মাধ্যমে বাবার মৃত্যুসংবাদ পান আদিত্যনাথ।

গভীর শোকাচ্ছন্ন যোগী আদিত্যনাথ এক বিবৃতিতে জানান, ‘করোনাভাইরাসের আতঙ্কের জন্য লকডাউন চলছে গোটা দেশে। মানুষ গৃহবন্দী। আমার ওপর উত্তরপ্রদেশের ২৩ কোটি মানুষের ভাল থাকা ও সুরক্ষা নির্ভর করছে। তাদের বিপদের মুখে ফেলে বাবার শেষকৃত্যে যাওয়া সম্ভব নয়।’

যোগী আরও বলেন বাবার পাশে শেষ সময়ে থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু লকডাউন ভেঙে রাজ্য ছেড়ে যাওয়া অসম্ভব। বাবা তাকে শিখিয়ে গেছেন- নিজের কাজের প্রতি সৎ থাকতে, কর্মঠ হতে। সেই কথা মেনেই রাজ্যবাসীর পাশে থাকবেন তিনি। মঙ্গলবার আনন্দজীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

বাবার শেষকৃত্য সম্পন্ন করার পাশাপাশি তার মা ও আত্মীয় স্বজনদের প্রতি আবেদন করেছেন যোগী আদিত্যনাথ যাতে লকডাউনের কোনো ভঙ্গ না করা হয়। লকডাউন শেষ হলেই তিনি তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

৭১ বছরের আনন্দজী কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। গত এক মাস ধরে তিনি এইমসে ভর্তি। তার মরদেহ দিল্লি থেকে নিয়ে যাওয়া হবে উত্তরাখণ্ডে তার গ্রাম পাওরি জেলায়। কভিড-১৯ নিয়ে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক চলাকালীন বাবার মৃত্যু সংবাদ পান যোগী আদিত্যনাথ।

সূত্র- এনডিটিভি।

আন্তর্জাতিক