এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি না রাখার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি না রাখার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

করোনা দুর্যোগ ও দুর্যোগ পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় বেশি করে খাদ্য উৎপাদনের ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য দেশের এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি না রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আজ সোমবার (২০ এপ্রিল) সকালে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের আট জেলার প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী এবং সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে দেওয়া বক্তৃতায় সংশ্লিষ্টদের এই পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে যে দুর্যোগ চলছে এই দুর্যোগ কেটে গেলেও গোটা বিশ্বে খাদ্য সংকট এমনকি দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে। কিন্তু আমাদের দেশে সেই সম্ভাবনা নেই যদি আমরা বেশি করে উৎপাদন করি। আমাদের উৎপাদন বাড়াতে হবে যেন আমরা অন্য দেশকেও সহযোগিতা করতে পারি।

কৃষকদের সুবিধা-অসুবিধা দেখার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনার কারণে এখন যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ। কিন্তু ধান কাটার জন্য কৃষকদের এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে হবে। তাই তারা যাতে প্রয়োজনমতো জমিতে যেতে পারেন তার জন্য আইনশৃঙ্খলা রাক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে তার ব্যবস্থা করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সামনে রোজা। রোজায় যেন মানুষের কষ্ট না হয়। তার জন্য ১০ টাকায় চালসহ নানা কর্মসূচি আমরা বাস্তবায়ন করছি। ইনশাল্লাহ খ্যদ্যের কোনো অভাব হবে না। আপনারা ফলমূল, শাকসবজি, শস্য বেশি করে উৎপাদন করবেন। আগামী তিন বছরের জন্য যেন আমাদের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব না পড়ে তার ব্যবস্থা করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা কৃষি খাতে পাঁচ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠন করে দিয়েছি। সেখান থেকে মাত্র পাঁচ শতাংশ হার সুদে কৃষকরা ঋণ নিতে পারবে। এ ছাড়া ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ী, পোলট্রি ব্যবসায়ী, মৎস্যজীবীসহ সবার কথা চিন্তা করে প্রণোদনা ঘোষণা করেছি, যাতে দেশের অর্থনীতি সচল থাকে।

সরকারের ত্রাণ সহায়তার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা পরিস্থিতি চলাকালে দুস্থরা যেন ত্রাণ সহায়তা পায় তার ব্যবস্থা করতে হবে। দুস্থ নয়- এমন পরিবার যেন ত্রাণ না পায়, যেন কেবল সত্যিকার দুস্থরাই ত্রাণ পায় তার ব্যবস্থা করতে হবে। ইতিমধ্যে নতুন করে দুস্থদের তালিকা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সুতরাং, তালিকায় যেন কোনো দুস্থ বাদ না পড়ে তার ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। 

বাংলাদেশ