করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত দেশে প্রথম এক চিকিৎসকের মৃত্যু

সাত দিন করোনার সঙ্গে লড়াই করে হেরে গেলেন সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের একজন সহকারী অধ্যাপক। আইসিইউতে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় গত ৭ এপ্রিল তাঁর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।
শনাক্ত হওয়ার পর সিলেটের বিশেষায়িত করোনা হাসপাতাল শামসুদ্দিন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন ওই চিকিৎসক। সেখান থেকে ৯ এপ্রিল তাঁকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন এই চিকিৎসক।
কুর্মিটোলা হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা জানান, তাঁকে ওই হাসপাতালে সর্বোচ্চ চিকিৎসা ব্যবস্থার আওতায় রাখা হয়েছিল। উন্নত বিশ্বে করোনা চিকিৎসায় যেসব ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে সেসব ওষুধ তাঁর ওপর প্রয়োগ করা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর সংক্রমণ অস্বাভাবিক দ্রুততায় বেড়ে যায়। তাঁর শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অকেজো হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে মারা যান তিনি।
এ ঘটনার মধ্য দিয়ে দেশে এই প্রথম করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত কোনো চিকিৎসকের মৃত্যু হলো বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র।

অন্যান্য