সাভার-আশুলিয়ায় ফের রাস্তায় শ্রমিকরা

সাভার-আশুলিয়ায় ফের রাস্তায় শ্রমিকরা

বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে সাভার-আশুলিয়ার অন্তত চারটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন। সোমবার সকালে সাভারের তেতুঁলঝোড়া ও আশুলিয়ার ইউনিক এলাকায় প্রায় দুই হাজার শ্রমিক বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন।

পুলিশ ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সাভারের তেতুঁলথোড়ায় একই মালিকানাধীন রাকেফ অ্যাপারেলস ওয়াশিং অ্যান্ড প্যাকেজিং ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড, প্যাশন জিন্স লিমিটেড ও প্যাশন অ্যাপারেলস অ্যান্ড ওয়্যারস লিমিটেডের প্রয় তিন হাজার শ্রমিক-কর্মচারী কাজ করেন। শ্রমিকদের দুই মাসের ও কর্মচারীদের তিন মাসের বেতন এবং অন্যান্য পাওনা পরিশোধ না করেই গত ২০ ফেব্রুয়ারি কারখানা তিনটি বন্ধ ঘোষণা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। সে সময় আন্দোলন দমাতে কারখানা কর্তৃপক্ষ কয়েক ধাপে শ্রমিক-কর্মচারীদের বকেয়া পরিশোধ করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন। তারা বেতন দেওয়ার তারিখও নির্ধারণ করে নোটিশ দেন। সোমবার সকালে শ্রমিকরা বকেয়া বেতনের জন্য কারখানার সামনে জড়ো হন। কারখানা বন্ধ পেয়ে তারা প্রথমে কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেন। সকাল সাড়ে আটটার দিকে তারা হেমায়েতপুর-সিংগাইর সড়কে অবস্থান নেন এবং সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন।

শ্রমিকেরা জানান, গত তিন মাসে কয়েক দফায় তাদের বেতন দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। কিন্তু দেই-দিচ্ছি করে বেতন দেওয়া হয়নি। সর্বশেষ সোমবার তাদের বেতন প্রদানের কথা ছিল। কিন্তু এর আগেই কর্তৃপক্ষ কারখানা বন্ধ করে গা ঢাকা দেয়। এদিকে দীর্ঘদিন বেতন না পেয়ে তারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বাসার মালিক ও দোকানিরা পাওনা টাকার জন্য তাঁদের চাপ দিচ্ছেন। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে তারা নতুন করে কোনো কাজও খুঁজে নিতে পারছেন না। এই অবস্থায় তাঁদের কেউ কোনো ধরনের ত্রাণ দিয়েও সহায়তাও করছেন না।

ন্যাশনাল গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সহসভাপতি কবির হোসেন বলেন, শ্রমিকরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। রবিবার কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তাদের আলাপ হয়েছে। কর্তৃপক্ষ কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। সোমবার সকালে বিক্ষোভ শুরু হলে কারখানা কর্তৃপক্ষ আগামী ৩০ এপ্রিল সকল পাওনাদি পরিশোধ করবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। কিন্তু শ্রমিকরা কারখানা কর্তৃপক্ষের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না। তারা বলেছেন, বেতন না পাওয়া পর্যন্ত তারা রান্তা ছেড়ে যাবেন না।

এদিকে বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে আশুলিয়ার ইউনিক এলাকায় ওয়ার্ল্ড ওয়ান ডেনিম অ্যান্ড ওয়াশিং লিমিটেড কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে শতাধিক শ্রমিক বিক্ষোভ করে। গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সাভার-আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল মামুন মিন্টু এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঢাকা শিল্প পুলিশ-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার জানে আলম খান বলেন, ‘আমাদের পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে আছেন। সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।’

অন্যান্য