অসহায় আইনজীবীদের জন্য ৬০ কোটি টাকা চেয়ে আইন মন্ত্রণালয়কে চিঠি

অসহায় আইনজীবীদের জন্য ৬০ কোটি টাকা চেয়ে আইন মন্ত্রণালয়কে চিঠি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে দেশের সকল আদালত বন্ধ থাকায় অসহায় আইনজীবীদের জন্য ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিতে আইন মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এএম আমিনউদ্দিন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকনের স্বাক্ষরে এ চিঠি দেওয়া হয়েছে।

সারা দেশের আইনজীবীদের জন্য এই বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে বলে জানান সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুবউদ্দিন খোকন। গত ৫ এপ্রিল এই চিঠি লেখা হলেও শনিবার এ চিঠি আইন মন্ত্রণালয়ে পৌঁছানো গেছে বলে জানান সমিতির তত্ত্বাবধায়ক নিমেষ চন্দ্র।

ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সকল আদালত বন্ধ। ফলে বিচার কাজ হচ্ছে না। এতে ক্ষতির মুখে পড়েছেন আইনজীবীরা। সারা দেশ থেকেই আইনজীবীদের অসহায়ত্বের খবর আসছে। আমরা মনে করি, অসহায় আইনজীবীদের আর্থিকভাবে সহযোগিতা করা প্রয়োজন। আমরা সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে কিছু করার চিন্তা করছি। তবে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে সারাদেশের আইনজীবীদের সহযোগিতা করা সম্ভব না। এ কারণেই সারাদেশে অসহায় আইনজীবীদের জন্য থোক বরাদ্দ হিসেবে ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিতে আইন মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছি। আশা করি সরকার আইনজীবীদের কথা বিবেচনা করে এ টাকা বরাদ্দ দেবেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন গত ৮ এপ্রিল এক বিবৃতিতে দেশের সকল নবীন ও সমস্যাগ্রস্তদের জন্য বার কাউন্সিলের ফান্ড থেকে অনুদান দেওয়ার দাবি জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, করোনাভাইরাসে পুরো দেশ লকডাউন হয়ে গেছে এবং আদালতের কার্যক্রম দীর্ঘদিন থেকে বন্ধ থাকায় দেশের সকল বারে (আইনজীবী সমিতি) যেসব আইনজীবী অর্থনৈতিক দূরাবস্থার মধ্যে পড়েছেন তাদের এককালীন অনুদান দেওয়া প্রয়োজন।

বাংলাদেশ