কানাডার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ট্রুডো

কানাডার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ট্রুডো

কানাডার ২৩তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন জাস্টিন ট্রুডো। এর মধ্য দিয়ে অবসান 6ঘটল দেশটির এক দশকের রক্ষণশীল শাসনের। গতকাল বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টায় অটোয়ার রিদুয়া হলে লিবারেল পার্টি নেতা ট্রুডো ও তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন।
শপথ অনুষ্ঠানে সাবেক প্রধানমন্ত্রী জাঁ ক্রেটিনসহ বহু গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। নতুন প্রধানমন্ত্রীর শপথের আগেই আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছিলেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন হারপার।
বুধবার একটি বাসে করে মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে পার্লামেন্ট ভবনে আসেন জাস্টিন ট্রুডো। হাসি মুখে স্ত্রী সুফিয়া গ্রেগরির হাত ধরে পার্লামেন্টর রিডো হলে প্রবেশ করেন। এ সময় সঙ্গে ছিল তাদের তিন সন্তানও।
এর আগেই একত্রিশ সদস্যের মন্ত্রিসভা গঠন করেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন। তিনি তার মন্ত্রিসভায় ১৫ জন করে নারী-পুরুষ মন্ত্রী নিয়ে জেন্ডার সমতায় ভারসাম্য আনেন। জন ম্যাককুলাম পররাষ্ট্র, ক্যারোলিন বেনেট অভিবাসন, স্কট ব্রিশন আদিবাসী ও উত্তরাঞ্চলীয় বিষয়ক, মোরনেঊ অর্থ এবং জাঁ উইভেস দুক্লোস স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিযুক্ত হয়েছেন। জাস্টিন নিজে রয়েছেন ইন্টারগভর্মেন্ট অ্যাফেয়ার্স এবং যুব মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে। আগামী ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে নতুন সরকারের প্রথম সংসদ অধিবেশন শুরু হবে।
কানাডায় দীর্ঘ এক যুগ পর ফের ক্ষমতায় এসেছে লিবারেল পার্টি। টানা ৯ বছর ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টিকে হারিয়ে রীতিমত চমক তৈরি করেন দলের নেতা জাস্টিন ট্রুডো। তার বাবা পিয়েরে ট্রুডোও কানাডার জনপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।
সাবেক স্কুল শিক্ষক জাস্টিন ট্রুডো ২০০৮ সালে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ৪৩ বছর বয়সী এই নেতা ২০১৫ সালে নির্বাচনী প্রচারণার সময়ই পরিবর্তনের আভাস দেন। তখন তরুণদের অংশগ্রহণে ও প্রবীণদের পরামর্শে সরকার পরিচালনার আশ্বাস দিয়েছিলেন তিনি।

Featured আন্তর্জাতিক