৩ বুদ্ধ মূর্তি উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৫

৩ বুদ্ধ মূর্তি উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৫

গতকাল বুধবার কুমিল্লা ও ফেনী থেকে তিনটি বুদ্ধ মূর্তিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। সকালে চট্টগ্রামে র‌্যাব-৭-এর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।গ্রেপ্তার পাঁচজন হলেন- মো. শাহাজাহান (৫৪), মো. মূসা (৫৬), নূর আলম (৪৫), রফিকুল ইসলাম (৫০) ও মো. আনোয়ার (৫০)। এদের মধ্যে শাহাজাহান, মূসা ও নূর আলমকে ফেনী থেকে এবং রফিকুল ও আনোয়ারকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাবের উপ অধিনায়ক নাজমূল হোসেন বলেন, গত দুই দিন কুমিল্লা ও ফেনীতে অভিযান চালিয়ে এসব বুদ্ধ মূর্তি উদ্ধার করা হয়। এগুলো কষ্টিপাথরের মূর্তি।
তিনি বলেন, এগুলো গত ২৯ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের রামু থেকে লুট হওয়া বুদ্ধ মূর্তি হতে পারে। আমরা বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে দেখছি। নাজমূল হোসেন বলেন, ১৯ নভেম্বর রাতে ফেনীর জামতলা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে দুটি বুদ্ধ মূর্তিসহ ওই তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী পরদিন রাতে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার নলুয়ায় অভিযান চালিয়ে বাকি মূর্তিটি উদ্ধার করা হয়।

কোরআন অবমাননার অভিযোগ তুলে গত ২৯ সেপ্টেম্বর রামুতে বৌদ্ধ বিহার ও বসতিতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয়। কক্সবাজারে অবস্থানরত রোহিঙ্গারাও ওই হামলায় জড়িত ছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। গত সোমবার রাজধানীর ভাষানটেক এলাকার একটি বুদ্ধ মূর্তি উদ্ধার করে র‌্যাব। এর আগে ৮ নভেম্বর উখিয়ায় কুতুপালং রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের বাজারে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় পিতলের তৈরি তিনটি বুদ্ধমূর্তি। এছাড়া ২৫ অক্টোবর রামু থেকে একটি এবং ৪ অক্টোবর উখিয়া থেকে আরো একটি বুদ্ধ মূর্তি উদ্ধার করা হয়।

বাংলাদেশ