তেঁতুলিয়া সীমান্তে বিএসএফ�র টহল জোরদার

তেঁতুলিয়া সীমান্তে বিএসএফ�র টহল জোরদার

তেঁতুলিয়ার মহানন্দার পাড় সহ বিভিন্ন সীমান্তে বিএসএফ�র টহল জোরদার করায় সীমান্তবাসীর মনে আতংক বিরাজ করছে। গতকাল বুধবার বিকেলে তেঁতুলিয়া সদরের পুরাতন বাজার মেইন পিলার ৪৪৩ এর ৮ সাব পিলার মহানন্দা নদীর বালুর চরে ৪জন বিএসএফ জোয়ানকে টহলরত দেখা গেছে। এছাড়া শারিয়ালজোত মেইন পিলার ৩৩৯ এবং ৪৪০ এর সাব পিলার ৮,৭, ১৩ ও ১৪ এর মাঝখানে জিরোলাইলে টহল দিচ্ছে। এসময় আমাদের বিজিবি�র অনুপস্থিতিতে বিএসএফ�রা বাংলাদেশের আখ ক্ষেতে এসে ঢুকে পড়ে। সীমান্তে হঠাৎ করেই বিএসএফ তাদের অপিপোস্ট ছেড়ে খোলা আকাশের নীচে টহল বৃদ্ধি করায় সীমান্তবাসীর মনে নানামুখী সংশয় ও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এদিকে মুড়িখাওয়া বিএসএফ সীমান্ত পিরিয়ে মহানন্দার বালু চরে বসে টহল দেয়ায় পুরাতন বাজার, মমিনপাড়া, সিদ্দিকনগর ও ঈদগাবস্তি গ্রামবাসীর মনে আতংক বিরাজ করছে। সিদ্দিকনগর গ্রামের বাসিন্দা সামাদের স্ত্রী জাহানারা, শহিদুলের স্ত্রী মাজেদা, ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী রাণী বলেন গত সপ্তাহ ধরে ভারতের মুড়িখাওয়া ক্যাম্পের বিএসএফ সীমান্তের এপারে  এসে মহানন্দার বালু চরে ডিউটি দিচ্ছে এবং দুপুরে এসে বাড়ি সংলগ্ন গামাড়ী গাছের নীচে বসে খানা খাচ্ছে।

হঠাৎ করে বিএসএফ�র এভাবে টহলে থাকায় আমরা টিউবওয়েলে গোসল করতে গেলেও ভয় লাগে। এছাড়া সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসলে আরো বেশি ভয় লাগে। মমিনপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. মজিবর রহমান, বাসশ্রমিক তাহেরুল ইসলাম ও তোফায়েল হোসেন বলেন; হঠাৎ করেই বিএসএফ�র এই ধরণের টহল আমাদের মনে বেশ আতংক ছড়িয়েছে। তবে বিজিবি টহলরত থাকলে কিছুটা ভয় কম লাগে। এদিকে  তেঁতুলিয়া সদর ক্যাম্পের বিজিবি জোয়ানদের ৪৪৩ এর সাব পিলার ৮ সংলগ্ন এলাকায় নিয়মিত টহল জোরদার করেছে। কিন্তু বিএসএফ� কেন এভাবে ডিউটি করছে তার সঠিক কোন তথ্য বিজিবিও জানে না।

তবে নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক সূত্রটি জানায় বিএসএফ�র উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এ সীমান্ত দিয়ে চোরাকারবারী (গরু-মহিষ) ব্যবসা ও নদীতে পাথর তোলা বন্ধ করার জন্যই এটহল জোরদার করেছে। স্থানীয় পাথর ব্যবসায়ী নজরুল ইসালম বলেন, বিএসএফ সপ্তাহ ধরে এই টহল জোরদার করার পর কোন শ্রমিক নদীতে নামতে পারছে। এমনকি নদীতে গোসল ও গরু-মহিষকে পানিও খেতে নিতে পারছে না। পাথর শ্রমিকরা নদীতে পাথর তোলতে না পারায় তাদের দূভোর্গ বাড়ছে।

এব্যাপারে ১৮ ব্যাটালিয়ন বিজিবি পঞ্চগড়, অধিনায়কের সংগে মুঠোফোনে যোগের চেষ্টা করা হলে তাঁকে পাওয়া যায়নি। তবে তেঁতুলিয়া কোম্পানী সদর ইনচার্জ বলেন; ভারতের ১৯৪ মুড়িখাওয়া কোম্পানী হেডকোয়াটার বিএসএফ বদল হওয়ায় নতুন কোম্পানীর বিএসএফ�রা এসে মহানন্দার চরসহ বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্টে তাদের নিয়ন্ত্রণের জন্যই টহল জোরদার করেছে। এখানে সীমান্তবাসীর ভয়ের কোন কারণ নাই। পাশাপাশি বিজিবি�র টহলও জোরদার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ