ভারত সফরে সুচি

ভারত সফরে সুচি

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী ও সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী অং সান সুচি ভারত সফরে এসেছেন বলে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে। প্রায় ১৫ বছর গৃহবন্দী থাকা গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী সুচির প্রথম ভারত সফর এটি।

সুচি ইতোমধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। তিনি ভারতের জনগণের উদ্দেশ্যে বক্তব্য প্রদান করবেন বলেও আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে। সুচির এই সফর ভারতের সঙ্গে মিয়ানমারের সম্পর্ক উন্নয়নে সহায় হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এছাড়া তিনি দিল্লি কলেজ পরিদর্শন করবেন বলেও জানা যায়। ১৯৬০ সালে তাঁর মা মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত থাকাকালে তিনি দিল্লি কলেজের ছাত্রী ছিলেন।

১৯৯৩ সালে ভারত সরকার সুচিকে সম্মানসূচক জহরলাল নেহেরু পুরস্কারে ভূষিত করে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের নভেম্বর মাসে কয়েক বছর ধরে সামরিক শাসনে থাকা মিয়ানমারে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন থেইন সেইন। এরপর দেশটি অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক উন্নতির পথে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানামরের উপর থেকে বিভিন্ন ধরনের বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। এছাড়া বিশ্বব্যাংক মিয়ানমারকে ঋণ দিতেও সম্মতি জানায়।

আগামি ১৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মিয়ানমার সফর করবেন বলে সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে। বারাক ওবামার সফরটি হবে মিয়ানমারে কোন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের প্রথম সফর।

চলতি বছরের শুরুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক এবং র‍াজনৈতিক সর্ম্পক শক্তিশালী করার জন্য দুইদিনের এক সফরে মিয়ানমার গিয়েছিলেন।

আন্তর্জাতিক