নিউইয়র্কের ঘটনায় দেশের মদতদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: হানিফ

নিউইয়র্কের ঘটনায় দেশের মদতদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: হানিফ

নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনাকারী বাংলাদেশি যুবক নাফিসের সঙ্গে জামায়াত কিংবা দেশীয় কোনো উগ্র সংগঠন জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখবে সরকার।

নিহত শেখ রাসেলের ৪৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “উগ্র মৌলবাদী জামায়াত দেশকে পাকিস্তানি ভাবধারার দেশ বানাতে চায়। তাদের কর্মকাণ্ড হচ্ছে উগ্র ও সন্ত্রাসীধারার। আমরা জাতিকে বহুবার তাদের কাছ থেকে সাবধান থাকতে বলেছি।”

হানিফ বলেন, “জামায়াত তাদের কর্মকাণ্ড দিয়ে শুধু দেশে নয়, বিদেশেও দেশকে চরম বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। নিউইয়র্কের ওই ঘটনায় দেশে কারা মদত দিয়েছে খুঁজে বের করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

জামায়াত সম্পর্কে জাতিকে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, “জামায়াতকে দিয়ে কখনোই জাতির কোনো কল্যাণ হতে পারে না।”

পঞ্চাশ বছরের কম বয়সী জামায়াতের অনুসারী যারা মুক্তিযুদ্ধ দেখেনি বা তখন জন্মগ্রহণ করেনি তাদের ফিরে আসার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, “যুদ্ধাপরাধের দায় আপনারা কেনো নেবেন?”

আলোচনা সভায় সমবেতদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আপনারা আপনাদের সব আত্মীয়-স্বজনকে জামায়াত থেকে দূরে রাখুন।

প্রসঙ্গ : সাবেক উপদেষ্টা আকবর আলী খান

বক্তব্যের এক পর্যায়ে সাবেক উপদেষ্টা ড. আকবর আলী খান-কে উদ্দেশ্য করে হানিফ বলেন, “আপনি যখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ছিলেন, তখন নির্বাচন করতে পারেন নি; বরং চরম অনিয়মের কারণে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন। আপনি এখন কোন মুখে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষে সাফাই গান? আপনার পদত্যাগ ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষে সাফাই গাওয়ার ব্যাখ্যা জাতিকে দিতে হবে।”

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তারানা হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক গোলাম কুদ্দুস, অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান প্রমুখ।

রাজনীতি