মালালার সেরে ওঠার সম্ভাবনা ক্ষীণ

মালালার সেরে ওঠার সম্ভাবনা ক্ষীণ

পাকিস্তানি কিশোরী নারী অধিকার কর্মী মালালার অবস্থা আরো খারাপের দিকে গেছে। তার সেরে ওঠার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

রোববার হাসপাতালের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই সূত্র জানিয়েছে,  আগামী ১২ ঘণ্টা তার জন্য খুবই সঙ্কটপূর্ণ। শনিবার একটু উন্নতি হলেও এখন সে নড়বার ক্ষমতাও হারিয়ে ফেলেছে।

তালেবানের গুলিতে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত মালালা ইউসুফজাই বর্তমানে রাওয়ালপিন্ডির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, মালালার মুখমণ্ডলসহ পুরো মাথা ভয়াবহ রকম ফুলে গেছে। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তার কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস ব্যবস্থা খুলে নেওয়া হতে পারে।

ওই হামলায় ডান হাতে আঘাত পাওয়া আরেক কিশোরী কাইনাতের অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গেছে। দুই সপ্তাহের মধ্যেই সে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শাজিয়া নামে আহত অপরজনকে পেশোয়ারে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল থেকে খুব শিগগিরই ছেড়ে দেওয়া বলে জানা গেছে।

এদিকে, পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী মালালার সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছে। তারা জানায়, একটি মেডিকেল টিম মালালার সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণের জন্য রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত এবং অবস্থার উন্নতি হচ্ছে।

গত শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী রাজা পারভেজ আশরাফ মালালাকে দেখতে হাসপাতালে যান। তার সুস্থতা কামানা করে সাধারণ মানুষ প্রার্থনা করে যাচ্ছে।

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পাকিস্তান পুলিশ ৬০ থেকে ৭০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে সোয়াত অঞ্চল থেকে এখনো কাউকে আটক করা হয়নি।

উল্লেখ্য, নারী শিক্ষার সমর্থনে নিজ ব্লগে লেখালেখী করে মালালা আন্তর্জাতিক খ্যাতি অর্জন করেছে। এ কারণে অনেক দিন ধরে তালেবানরা তার ওপর ক্ষিপ্ত ছিল।

আন্তর্জাতিক