সিরীয় মর্টার হামলায় তুরস্কে একই পরিবারের ৫ সদস্য নিহত

সিরীয় মর্টার হামলায় তুরস্কে একই পরিবারের ৫ সদস্য নিহত

তুর্কি সীমান্ত শহরে আঘাত হানা সিরীয় মর্টারের গোলায় একই পরিবারের ৫ সদস্য নিহত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সিরিয়ার অভ্যন্তরে গোলা বর্ষণ শুরু করেছে তুর্কি সামরিক বাহিনী।

সিরীয় সীমান্তবর্তী দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় তুর্কি শহর আকাকেলেতে সিরিয়া থেকে ছোড়া মর্টারের গোলা আঘাত হানলে এক তুর্কি পরিবারের পাঁচ সদস্য নিহত হয়। বুধবার রাতে সংঘটিত এ হামলার প্রতিক্রিয়ায় সিরিয়ার অভ্যন্তরে কামানের গোলাবর্ষণ শুরু করে তুর্কি বাহিনী।

এ গোলাবর্ষণ এখনও অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম। রাতভর অব্যাহত তুর্কি বাহিনীর গোলাবর্ষণে তাল আল আবেইদ এলাকায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সিরীয় সেনা হতাহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সিরিয়ার সরকার বিরোধী রাজনৈতিক কর্মীরা।

এদিকে তুর্কি সরকার সীমান্ত অতিক্রম করে সিরিয়ার অভ্যন্তরে সামরিক অভিযান চালানোর ব্যাপারে পার্লামেন্টের কাছে অনুমতি প্রার্থনা করবে বলে জানা গেছে।

সিরিয়ার অভ্যন্তরে গোলাবর্ষণের ব্যাপারে বুধবার দিনের শেষে দেওয়া এক বিবৃতিতে তুর্কি প্রধানমন্ত্রী রেসেপ তাইপ এরদোগান বলেন, রাডারের মাধ্যমে সনাক্ত করে নির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো  হয়েছে।

পাশাপাশি তুর্কি উপ প্রধানমন্ত্রী বুলেন্ট আরিন ভবিষ্যতে এ ধরণের হামলা হলে তীব্র প্রত্যাঘাতের হুমকি দেন। তিনি বলেন, “আমাদের ভূমিতে আমাদের নাগরিকদের ওপর হামলা হলে আমরা চুপ করে বসে থাকবো না। জনগণকে রক্ষা করার অধিকার আমাদের আছে।”

এদিকে তুরস্কের পশ্চিমা মিত্ররাসহ ন্যাটোর মহাসচিব আন্দ্রেস ফগ রামুসে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার নিন্দা জানিয়েছেন।

তবে এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে সিরীয় তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন তাদের সরকার এ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে। পাশাপাশি বেসামরিক মানুষ নিহত হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেছে তারা।

এদিকে এ ঘটনার পর তুরস্ক ব্রাসেলসে ন্যাটোর সদস্যগুলোকে নিয়ে একটি জরুরি বৈঠকের আহবান করেছে বলে জানা গেছে।

আন্তর্জাতিক