বিকেএমইএ নির্বাচন: ১২ জনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার

বিকেএমইএ নির্বাচন: ১২ জনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার

দেশের নিট গার্মেন্ট মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ) ২০১২-১৪ এর পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে ৫জন হেভিওয়েট প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের পর এবার দু’টি প্যানেল থেকে ১২ জন প্রার্থী তাদের নিজ নিজ প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

শনিবার ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন।

সাবেক সভাপতি ফজলুল হকের নেতৃত্বাধীন প্যানেল থেকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়া ৫ জন হলেন, প্যাসিফিক সোয়েটার্সের আব্দুর রহমান, প্রিতম ফ্যাশনস লিমিটেডের (প্রাইম গ্রুপ) আবু জাফর আহাম্মদ বাবুল, মার্টিন ফ্যাশনসের জিএম হায়দার আলী বাবলু, গোমতী নিটওয়্যারের নওশের আলম ও রেডিয়েন্স নিটওয়্যার লিমিটেডের এসকে আবদুস সালাম।

বর্তমান সভাপতি সেলিম ওসমানের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদের প্যানেল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেওয়া ৭ জন হলেন জিএম ফারুক, তাপস কুমার সাহা, সৈয়দ আবু ইউসুফ আব্দুল্লাহ, সেলিম সারোয়ার, ফারুক বিন ইউসুপ পাপ্পু, ফরিদউদ্দিন আহম্মেদ ও গওহর সিরাজ জামিল।

বিকেএমইএ সচিব সুলভ চৌধুরী জানান, শনিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময়। মোট ১২ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। রোববার চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

প্রসঙ্গত, সম্মিলিত পরিষদের ৩৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। আর ফজলুল হক গ্রুপের ৩২ জন।

২ সেপ্টেম্বর নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মিলনায়তনের শীতলক্ষ্যা কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে ৬৫২ জন গার্মেন্ট মালিক ২৭ জন পরিচালক নির্বাচন করবেন। পরে ২৭ পরিচালকের অভ্যন্তরীণ ভোটে নির্বাচিত হবেন একজন সভাপতি ও ৪ জন সহ-সভাপতি। তবে এ ২৭ পদের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছিলেন ৬৮ জন।

বর্তমান সভাপতি সেলিম ওসমানের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত নিট পরিষদ ৩৬ জন ও সাবেক সভাপতি ফজলুল হকের নেতৃত্বাধীন প্যানেল থেকে ৩২ জন তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ইতিপূর্বে নির্বাচনে ৬১ জন প্রার্থীর প্রার্থীতা বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়।

অর্থ বাণিজ্য