রাজবাড়ীতে যুবদল নেতা হত্যা, আটক ১, শনিবার অর্ধদিবস হরতাল

রাজবাড়ীতে যুবদল নেতা হত্যা, আটক ১, শনিবার অর্ধদিবস হরতাল

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে রাজবাড়ী জেলা যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক সামসুল ইসলাম বাবলুকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আরিফ (২৮) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত বাবলু রাজবাড়ী শহরের বিনোদপুর এতিমখানা এলাকার মৃত আবদুল হামিদের ছেলে।

আটক আরিফ রাজবাড়ী রেলস্টেশন সংলগ্ন কুলিপট্টি এলাকার বাসিন্দা।

এ হত্যার ঘটনায় রাজবাড়ী বিএনপি সেখানে শনিবার অর্ধদিবস হরতাল ডেকেছে। শুক্রবার জেলা বিএনপির জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, শুক্রবার বাদ আছর বাবলুর মরদেহ জেলা পার্টি অফিসে নেওয়া হবে। সেখানে শ্রদ্ধা জানানোর পর তার মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হবে।

জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে খৈয়মের বাসায় এ বৈঠক হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে যুবদল নেতা বাবলু প্রয়োজনীয় কাজ সেরে শহর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে শহরের বিনোদপুর পুলিশ ফাঁড়ি সংলগ্ন সড়কে একদল সন্ত্রাসী তার ওপর গুলি চালালে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে বিনোদপুর ফাঁড়ির পুলিশ তাকে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ জানায়, বাবলুর মুখ ও বুকসহ শরীরের অন্তত ৫/৬ স্থানে গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। খবর পেয়ে রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মো. রেজাউল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, সাবেক এমপি মো. নাসিরুল হক সাবু নিহতের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাবুদ্দিন খলিফা জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, হত্যাকারীদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে। এছাড়া শহরে অতিরিক্ত সতর্কতা গ্রহণ করেছে পুলিশ।

বেলা সোয়া ১১টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছিল।

বাংলাদেশ