দাঙ্গায় ইন্ধন যোগানোর অভিযোগে আসামে এমএলএ গ্রেফতার

দাঙ্গায় ইন্ধন যোগানোর অভিযোগে আসামে এমএলএ গ্রেফতার

আসামে চলমান সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ইন্ধন যোগানোর অভিযোগে রাজ্য বিধান সভায় আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল বোড়োল্যান্ড পিপলস ফ্রন্ট (বিপিএফ) থেকে নির্বাচিত এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বিপিএফ আসামের ক্ষমতাসীন কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের অন্যতম শরীক দল। বৃহস্পতিবার দিনের প্রথম প্রহরে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে ভারতের টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকা।

প্রদীপ ব্রাহমা নামের এই এমএলএ আসামের পশ্চিম কোকড়াঝড় থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধি। কোকড়াঝড় শহরে নিকটবর্তী দোতোমায় অবস্থিত নিজ বাড়ি থেকে তাকে বুধবার দিবাগত রাত একটার দিকে গ্রেফতার করা হয়।

আসামের সাম্প্রতিক ‘মুসলিম বাঙ্গালি-বোড়ো উপজাতি’ দাঙ্গায় প্রত্যক্ষ ইন্ধন ও অংশগ্রহণের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আসামের বিভিন্ন থানায় ইতিমধ্যেই সাতটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম।

তার রাজনৈতিক দল বিপিএফ বর্তমানে আসামের বোড়োল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অটোনোমাস ডিস্ট্রিক্ট্রের (বিটিএডি) শাসন ক্ষমতায়। হাগরামা মোহিলারি দলটির প্রধান।

এদিকে এ গ্রেফতার ও পাশ্ববর্তী ধুবড়ি জেলায় বুধবারের সহিংসতায় দু’জন নিহত হওয়ার প্রেক্ষিতে কোকড়াঝড় জেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করেছে কর্তৃপক্ষ।

ব্রাহমার সমর্থকরা তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে রেলপথ এবং কোকড়াঝড়ের মধ্যে দিয়ে যাওয়া ভারতের ৩১ নং জাতীয় মহাসড়ক অবরোধ করলে সেনাবাহিনী ফ্লাগ মার্চ করে তাদের অবরোধ ভেঙ্গে দেয় বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম।

আসামের বাংলাদেশ ও ভুটান সীমান্তের মধ্যবর্তী কোকড়াঝড়, ধুবড়ি এবং চিরাঙ্গ জেলার সাম্প্রতিক ‘মুসলিম-বোড়ো’ সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় সরকারি হিসেবেই নিহত হয়েছে ৮০ জন। এছাড়া সহিংসতার কারণে আরও চার লাখ লোক বাস্তুচ্যুত হয়ে পড়েছে যাদের অধিকাংশই আসামের স্থানীয় বাঙ্গালি মুসলিম অধিবাসী।

আন্তর্জাতিক