প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে আবিদ শাহরিয়ারকে স্মরণ

প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে আবিদ শাহরিয়ারকে স্মরণ

আবিদ শাহরিয়ার নেই, একবছর পূর্ণ হলো। গত বছরের ২৯ জুলাই কক্সবাজার সমূদ্র সৈকতের উত্তাল স্রোতে ভেসে  তিনি মর্মান্তিকভাবে প্রাণ হারান। ‘কোজ আপ ওয়ান’ খ্যাত অকালপ্রয়াত আবিদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে স্মরণ করছে তার অগুনতি ভক্ত-শ্রোতা আর শুভাকাঙ্খী।

রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী আবিদ শাহরিয়ার বিজ্ঞাপনী সংস্থা মাত্রার একটি দলের সঙ্গে বিজ্ঞাপন নির্মাণের কাজে গতবছর ২৮ জুলাই কক্সবাজার যান। ২৯ জুলাই সন্ধ্যায় দুই বন্ধুকে নিয়ে আবিদ গোসল করতে নামেন কক্সবাজার সমূদ্র সৈকতের কলাতলী পয়েন্টে। এ সময় প্রবল স্রোতে তাদের তিনজনই ভেসে যান। স্থানীয় লোকজন ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা আবিদকে  মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে। তাদের দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। আবিদের সঙ্গের দুই তরুণও একই সাথে প্রাণ হারান।

সঙ্গীতশিল্পী আবিদ শাহরিয়ার ছিলেন কোজ আপ ওয়ানের  প্রথম আয়োজনের অন্যতম সেরা তারকা। রবীন্দ্রসঙ্গীতের জন্য তিনি সুপরিচিতি পেয়েছিলেন। আবিদ গানের পাশাপাশি ২০০৯ সালের কোজ আপ ওয়ান ইভেন্ট উপস্থাপনাতেও করেছিলেন।

আবিদের প্রথম মৃত্যবার্ষিকীতে আবিদের গ্রামের বাড়ি খুলনায়  এক স্মরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সকাল ৮টা ১০ মিনিটে দৌলতপুরের মহেশ্বরপাশায় আবিদের কবরে ফুল দিয়ে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে অংশ নিবেন আবিদের পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধুবান্ধব ও ভক্তছাড়া আরও উপস্থিত থাকছেন খুলনার প্রশাসক মেজবাহ্ উদ্দিন, প্রফেসর মো. শফিউল্লাহ সরদার, গাজী শহীদুল্লাহ্ ও কমরেড সাইদুর রহমান। আবিদ শাহরিয়ার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে সন্ধ্যায় খুলনার মিয়াপাড়ার পারিবারিক বাসভবন ‘সুনীড়’-এ রয়েছে দোয়া মাহফিল ও ইফতার পরিবেশন।

অকাল প্রয়াত আবিদ শাহরিয়ার জন্মগ্রহণ করেন খুলনায় ১৯৮৪ সালের ১৮ জুলাই। ‘পাগলা হাওয়ার বাদল দিনে’- এই রবীন্দ্রসঙ্গীতটি গেয়ে ২০০৫ সালের কোজ আপ আসরে দর্শক-শ্রোতার মন ছুঁয়েছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১০মার্কেটিংয়ে আবিদ এমবিএ সম্পন্ন করেন। গতবছর জানুয়ারিতে তিনি সুপ্রতিষ্ঠিত বিজ্ঞাপনী সংস্থা মাত্রায় সিনিয়র এক্সিকিউটিভ কায়েন্ট সার্ভিস পদে যোগদান করেছিলেন।

আবিদ শাহরিয়ারের  গাওয়া গান নিয়ে তিনটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে; এগুলো হলো—‘এত ভালোবাসি’ (রবীন্দ্রসংগীত), ‘ভালোবাসার প্রহর’ (আধুনিক) ও ‘নব আনন্দে জাগো’ (রবীন্দ্রসংগীত)। এ ছাড়া আবিদের মঞ্চে গাওয়া গান নিয়ে প্রকাশের অপোয় রয়েছে ‘হে বন্ধু হে প্রিয়’। এই অ্যালবামের টাইটেল গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন আবিদের ছোট ভাই বাঁধন শাহিরয়ার।

বিনোদন