দরপত্রে বিশেষ সুবিধা চায় কনোকো-ফিলিপস

দরপত্রে বিশেষ সুবিধা চায় কনোকো-ফিলিপস

বঙ্গোপসাগরে ইজারা পাওয়া ১০ ও ১১ নম্বর ব্লকের পুরো অংশে অনুসন্ধান কার্যক্রম চালাতে চায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কনোকো-ফিলিপস। একইসঙ্গে বঙ্গোপসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে বাংলাদেশ সরকার আগামীতে যে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহবান করবে সেখানেও বিশেষ সুবিধা বা অগ্রাধিকার চায় প্রতিষ্ঠানটি।

সোমবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে সাক্ষাতকালে কনোকো- ফিলিপস-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট লাফারেন্দ্র থ্রি উইলিয়াম জি (Lafferrandre III, William G এ অনুরোধ জানান। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক থমাস জে আরলে (Thomas J. Earley) এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

উল্লেখ্য, বঙ্গোপসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে ২০০৮ সালে ৮টি ব্লকের ইজারা পায় কনোকো ফিলিপস। কিন্তু ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা নিয়ে জটিলতা থাকায় শুধু ১০ ও ১১ নম্বর ব্লকে অনুসন্ধান চালানোর অনুমতি দেয় সরকার। এছাড়া তখন মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমার বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় এ দুই (১০ ও ১১) ব্লকেরও কিছু কিছু অংশে অনুসন্ধান চালাতে পারেনি কনোকো-ফিলিপস। সম্প্রতি মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমার বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় ১০ ও ১১ নম্বর ব্লকের অবশিষ্ট অংশে অনুসন্ধান চালানোর দাবি জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

কনোকো-ফিলিপস-এর প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলাপ শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন “বঙ্গোপসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে বাংলাদেশ সরকার আগামীতে যে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহবান করবে সেখানে বিশেষ সুবিধা বা অগ্রাধিকার চায় কনাকো-ফিলিপস। এর আগেই তারা এ বিষয়ে সরকারকে চিঠি দিয়েছে। এ ব্যাপারে অগ্রগতির খোঁজ-খবর নিতেই আজ তারা এসেছিলেন।”

অর্থমন্ত্রী আরও জানান, এছাড়া ১০ ও ১১ নম্বর ব্লকের অবশিষ্ট অংশে অনুসন্ধান কাজ চালানোর অনুমতি চেয়েছে কনাকো। এরইমধ্যেই এ দুই ব্লকে সিসমিক সার্ভের কাজ শেষ করেছে তারা। আগামী সেপ্টেম্বর নাগাদ এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে।

অর্থ বাণিজ্য