যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবিতে খুলনায় ১৪ দলের দীর্ঘ মানবপ্রাচীর

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবিতে খুলনায় ১৪ দলের দীর্ঘ মানবপ্রাচীর

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবিতে খুলনায় শুক্রবার ১ ঘণ্টার জন্য দীর্ঘ ১৫ কিলোমিটার মানবপ্রাচীর গড়ে তোলেন ১৪ দলের নেতাকর্মীরা।

সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা এ ১ ঘণ্টা মহানগরীর কাস্টমস ঘাট থেকে ফুলবাড়ীগেট এলাকা পর্যন্ত এ মানবপ্রাচীর গড়ে তোলা হয়।

এ সময় নেতারা বলেন, ‘মহান স্বাধীনতার মাসে বেগম খালেদা জিয়া ও তার দোসররা পাকিস্তানি আইএসআই-এর নীলনকশা অনুসারে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ব্যাহত করার জন্য গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তারই প্রমাণ সম্প্রতি ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থান ও সৌদি ক‍ূটনীতিক হত্যা।’

তারা বলেন, ‘এখনই সময় মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধে বিশ্বাসী সব দলমতের মানুষদের ঐক্য গড়ে তোলা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা প্রিয় মানুষ সব দেশবিরোধী অপশক্তিদের গভীর ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে আজ প্রস্তুত।’

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক এতে সভাপতিত্ব করেন।

এ সময়ে নেতারা বলেন, মহান স্বাধীনতা মাসের এ মহেন্দ্রক্ষণে আমাদের স্লোগান হোক- ‘বীর বাঙালি জেগে ওঠো, রাজাকারদের বিচার করো।’

তারা বলেন, ‘এ মাসেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন। এদেশের মানুষ বঙ্গবন্ধুর ডাকে নিরস্ত্র অবস্থায় শত্রুর মোকাবিলা করে দেশ স্বাধীন করে। সুতরাং এ স্বাধীনতার মাসে শপথ নিতে হবে বাংলার মাটিতে কোনো যুদ্ধাপরাধীর ঠাঁই দেওয়া হবে না। আর যারা যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা অথবা ঠাঁই দেওয়ার চেষ্টা করবে, এদেশের মানুষ তাদেরকে উপযুক্ত জবাব দেবে।’

নেতারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করার জন্য খুলনাসহ দেশের প্রত্যেকটি বিভাগীয় ও জেলা শহরে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

মানবপ্রাচীরে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নেতা, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক হুইপ এসএম মোস্তফা রশিদী সুজা, মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও মহাজোটের সমন্বয়ক মিজানুর রহমান মিজান, ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক কমরেড হাফিজুর রহমান ভূঁইয়া, মহানগর জাসদের সভাপতি রফিকুল হক খোকন, মহানগর জাকের পার্টির সভাপতি বদর উদ্দিন বিশ্বাস বদু, জেলা জাসদের সভাপতি ফজলুর রহমান, সাম্যবাদী দলের এফএম ইকবাল হোসেন, মহানগর জাসদ সাধারণ সম্পাদক খালিদ হোসেন, মহানগর ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক তপন কুমার রায়, জেলার সাধারণ সম্পাদক স ম হোসেন, প্যানেল মেয়র আজমল আহমেদ তপন প্রমুখ।

মানবপ্রাচীরে আওয়ামী লীগ, এর সহযোগী সংগঠন ও ১৪ দলের হাজার হাজার নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

রাজনীতি