দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলবেন না সাকিব!

SHARE

দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে টেস্ট সিরিজ খেলবেন না সাকিব আল হাসান! সম্ভবত ফ্যাফ ডু প্লেসির প্রোটিয়া বাহিনীর সঙ্গে এ মাসের শেষ সপ্তাহে যে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হতে যাচ্ছে, তাতে দেখা যাবে না বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডারকে।

নাহ, কোনো ইনজুরি কিংবা ব্যক্তিগত বা পারিবারিক সমস্যার কারণে নয়। আবার হাওয়া থেকে পাওয়া খবর নয় কিংবা ক্রিকেট পাড়ার গুঞ্জনও নয়। ক্রিকেট বোর্ডের উচ্চপর্যায়ের নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে আগামী ছয় মাস টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চান না সাকিব। শুধু টেস্ট থেকে দূরে থাকার ইচ্ছা প্রকাশই নয়, আগামী ছয় মাস টেস্ট থেকে বিরত থাকার আবেদন করেছেন সাকিব। আজই বোর্ডে চিঠি দিয়ে সে আবেদনের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দিয়েছেন সাকিব।

বোর্ড তাৎক্ষণিকভাবে সাকিবের আবেদনে ‘হ্যাঁ বা না’ কিছু না বললেও ভেতরের খবর, সাকিবের আবেদন আংশিক মেনে নেবে বিসিবি। উচ্চপর্যায়ের দায়িত্বশীল সূত্র জাগো নিউজকে এ তথ্য দিয়ে বলে, ‘সাকিব ক্লান্তি ও অবসাদের কথা উল্লেখ করে ছয় মাসের ছুটি চেয়েছেন। এই ছয় মাসের মধ্যে রয়েছে দুটি টেস্ট সিরিজ। যার প্রথমটি দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে। আর অন্যটি আগামী ডিসেম্বরে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।’

সূত্র জানিয়েছে, ‘সাকিবের আবেদন পুরোপুরি না মানলেও বোর্ড হয়তো তাকে তিন মাসের ছুটি দিতে পারে। আর তা দেয়ার অর্থ দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ না খেলা এবং খুব সম্ভবত বোর্ড তা মেনে নেবে। অর্থাৎ সাকিবকে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ থেকে দূরে থাকার অনুমতি দেবে বোর্ড।’

তবে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে হোম সিরিজ পর্যন্ত তার ছুটি মঞ্জুরের সম্ভাবনা খুব কম। সূত্র জানায়, ‘বোর্ড সম্ভবত সাকিবকে এ বছরের শেষ মাসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হোম সিরিজ খেলার কথা বলবে।’

এদিকে সাকিবের এই ছয় মাসের ছুটির কারণেই দল ঘোষণায় দুদিন বিলম্ব। গতকাল (শনিবার) সন্ধ্যায় দল ঘোষণার কথা ছিল। জানা গেছে, বোর্ড সভাপতির বাসায় টিম ম্যানেজমেন্ট ও অধিনায়ক মুশফিক, কোচ হাথুরুসিংহে আর প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর অনানুষ্ঠানিক সভায়ই সাকিবের ছুটির আবেদনের বিষয়টি নিয়ে কথা হয়। আর সাকিব ইস্যুতে বোর্ডের সিদ্ধান্ত না নেয়া পর্যন্ত এবং সাকিবের বিকল্প নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত দল ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY