প্রধানমন্ত্রীর জনসভা ঘিরে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তোরণ-বিলবোর্ড

প্রধানমন্ত্রীর জনসভা ঘিরে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তোরণ-বিলবোর্ড

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেট আগমনকে কেন্দ্র করে সাজ সাজ রব পুরো জেলা জুড়ে। শেখ হাসিনাকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত এই পূণ্যভূমি। রাস্তার দুই পাশে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

রাস্তার মোড়ে মোড়ে তৈরি হয়েছে তোরণ। এই প্রচারণায় পিছিয়ে নেই মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সমর্থকরা ‘এমপি হিসেবে দেখতে চাই’ লিখে তোরণ ও বিলবোর্ড তৈরি করেছেন। সিলেট শহর ও আশপাশের এলাকায় শোভা পাচ্ছে এমন তোরণ, বিলবোর্ড ও ব্যানার।

ইতোমধ্যে সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠ প্রধানমন্ত্রীর জনসভার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। নৌকার আকৃতিতে সাজানো হয়েছে মঞ্চ, পাশেই বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধন ও ভিত্তিস্থাপনের ফলক নির্মাণ করা হয়েছে। ওসমানি বিমানবন্দর থেকে বের হয়েই প্রথমে হযরত শাহ জালাল, শাহ পরান ও গাজী বোরহানুদ্দিন (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করে জনসভাস্থলে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে প্রকল্পগুলো উদ্বোধন ও ভিত্তস্থাপন শেষে বিকাল ৩টায় সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে জনসভায় ভাষণ দেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে ইতিমধ্যে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে পুরো সিলেট এলাকা। মহানগর এলাকায় সকাল থেকে পুলিশের সাজোয়া যান ও বিভিন্ন নিরাপত্তা যান প্রদক্ষিণ করতে দেখা গেছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, শামীম আহমেদ চৌধুরী, বিনয় ভূষণ তালুকদার, আবুল মাল আবদুল মুহিত, আবদুল মোমিন চৌধুরী, রনজিত সরকার, শাহ মো. মুসলিম ও জাকির হোসেন চৌধুরী সেলিমকে এমপি হিসেবে দেখতে চাই উল্লেখ করে করা তোরণ, বিলবোর্ড, ব্যানার-ফেস্টুন চোখে পড়েছে।

এছাড়া নির্বাচনী এলাকা উল্লেখ করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এনামুল হক মোস্তফা শহীদ, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও উপাধ্যক্ষ আব্দুস সহিদ প্রমুখ। এছাড়া সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আসাদ উদ্দিনকে মেয়র পদে দেখতে চাই উল্লেখ করেও বিলবোর্ড করা হয়েছে অনেক।

Leave a Reply